1.01.2007

বিগত যামানার মুজাদ্দিদ কারা ছিলেন? এবং বর্তমান যামানার ইমাম বা মুজাদ্দিদ কে?

মুজাদ্দিদুয যামান বা যামানার ইমাম
পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ এবং হাদিস শরীফ সম্পর্কে যথেষ্ট ধারনা না থাকায় অনেকে ধারনা করে বলে থাকেন যে সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম মাহদী আলাইহিস সালাম উনার পূর্বে আর কোনো খলীফা আসবে না। কিন্তু এ আক্বীদা কোরআন সুন্নাহ বিরোধী। কারন হযরত ইমাম মাহদী আলাইহিস সালাম উনার পূর্বে আরো খলীফা এসে খিলাফত পরিচালনা করবেন তার স্পষ্ট দলীল সহীহ হাদীস শরীফে আছে। দেখুন পবিত্র হাদীস শরীফে কি আছেঃ- ﻋﻦ ﺍﻡ ﺍﻟﻤﺆﻣﻨﻴﻦ ﺣﻀﺮﺕ ﺍﻡ ﺳﻠﻤﺔ ﻋﻠﻴﻬﺎ ﺍﻟﺴﻼﻡ ﻗﺎﻟﺖ ﻗﺎﻝ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺻﻠﻲ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﺳﻠﻢ ﻳﻜﻮﻥ ﺍﺧﺘﻼﻑ ﻋﻨﺪ ﻣﻮﺕ ﺧﻠﻴﻔﺔ ﻓﻴﺨﺮﺝ ﺭﺟﻞ ﻣﻦ ﺃﻫﻞ ﺍﻟﻤﺪﻳﻨﺔ ﺍﻟﻲ ﻣﻜﺔ
অর্থ উম্মুল মু'মিনিন হযরত উম্মে সালামা আলাইহাস সালাম উনার থেকে বর্নিত। তিনি বলেন, হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ মুবারক করেন, শেষ যানানায় একজন খলীফার বিছাল শরীফ হলে নেতৃস্থানীয় লোকদের মধ্যে আর একজন খলীফা মনোনীত করার ব্যাপারে ইখতিলাফ বা মতবিরোধ দেখা দিবে। তখন এক ব্যক্তি তথা ইমাম মাহদী আলাইহিস সালাম তিনি মদীনা শরীফ থেকে মক্কা শরীফ রওয়ানা হবেন।"
দলীল-
মুসনাদে আহমদ ৬/৬১৬।
আবু দাউদ।
আবু ইয়ালা ১২/৩৬৯।
আল মু'জামুল কবীর ১৭/২০৭।
ইবনে আবী শায়বা ৭/৪৬০।
ইবনে হিব্বান ১৫/১৫৮।
মুছন্নাফে আব্দুর রাজ্জাক ১১/৩৭১।
আস সুনান ওয়ারিদা ফিল ফিতান ৫/১০৮৩।
জামিয়ুল আহাদীস সূয়ুতি ২৪/২২৯।
আখবারিল মাহদী লিছ সুয়ূতী ১/৫৬।
ফতহুল কবীর ৩/৪০৫।
কানযুল উম্মাল ১১/১৩৫।
সুবহুল হুদা ওয়ার রাশাদ ১০/৩৭২।
আন নিহায়াহ ১/১৬।

উপরোক্ত হাদীস শরীফ থেকে দিবালোকের মত প্রমানিত হয় যে, হযরত ইমাম মাহদী আলাইহিস সালাম উনার পূর্বে খিলাফত আলা মিনহাজিন নবুওয়াহ প্রতিষ্ঠা ও পরিচালিত হবে। সুবহানাল্লাহ্!!!

আসুন এখন জেনে নেই সেইসব মুজাদ্দিদুয যামান বা যামানার ইমাম বা কাণ্ডারি উনাদের সম্পর্কে কারা ছিলেন যামানার ইমাম।?

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন্ নাবিয়্যীন নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ মোবারক করেন, “নিশ্চয়ই খালিক মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমার উম্মতের মধ্যে থেকে প্রতি হিজরী শতকের মাথায় মাথায় একজন করে মুজাদ্দিদ বা দীন সংস্কারক প্রেরণ করবেন। যিনি দীন ইসলামকে (অর্থাৎ দ্বীনের মধ্যে প্রবিষ্ট যাবতীয় বিদয়াত, বেশরা, কুফরী, শিরেকী ইত্যাদি ধ্বংস করার মাধ্যমে) তাজদীদ বা সংস্কার করবেন।
আবূ দাঊদ শরীফ
শরহে বদরুদ্দীন আইনী
বযলুল মাজহুদ
আউনুল মাবূদ
ফতহুল মুলহিম
মিশকাত শরীফ
মিরক্বাত শরীফ
লুমুয়াত
আশয়াতুল লুমুয়াত
মুযাহিরে হক্ব
শরহুত ত্বীবী
আত্ তালীকুছ ছবীহ
মিরয়াত শরীফ।

উপরোক্ত হাদীছ শরীফ মুতাবিক খালিক মালিক রব মহান আল্লাহ পাক-উনার সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন্ নাবিয়্যীন নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বিছাল শরীফ-এর পর ২য় হিজরী শতক থেকে মুজাদ্দিদ আগমনের ধারা শুরু হয়েছে। মনে রাখতে হবে, যিনি যে যামানার মূল মুজাদ্দিদ তাঁকে ইমামুল আইম্মাহ, আল গাউছুল আযমও বলা হয়। নিম্নে প্রত্যেক হিজরী শতকের মূল মুজাদ্দিদগণের তালিকা পেশ করা হলো।

১ম হিজরী শতকঃ ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণের যামানা তথা ১ম হিজরী শতক ১০০ থেকে ১১০ হিজরী পর্যন্ত। ১ম হিজরী শতক হচ্ছে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণের যামানা। অতএব, মুজাদ্দিদ আগমন শুরু হয়েছে ২য় হিজরী শতক থেকে।

২য় হিজরী শতকঃ তাবিয়ী, আল মুজতাহিদুল মুতলাক্ব, আল ইমামুল আযম ২য় হিজরী শতকের আল মুজাদ্দিদুল আযম, আল মুজাদ্দিদুল আউয়াল, হাকিমুল হাদীছ, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আবূ হানীফা নুমান বিন ছাবিত ইবনে যাওত্বী কূফী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু। জন্ম মুবারকঃ ৮০ হিজরী। ওফাত মুবারকঃ ১৫০ হিজরী। তিনি সর্বশ্রেষ্ঠ মাযহাব হানাফী মাযহাবের মহান ইমাম এবং ইলমুল ফিক্বহ ও ইলমুল উছূল-এর প্রতিষ্ঠাতা ।
উনার লিখিত কিতাবঃ আল ফিক্বহুল আকবর (আহলুস্ সুন্নাহ ওয়াল জামায়াহ-এর আকাইদ সম্পর্কিত)। (কাশফুয্ যুনূন, তারীখুল বাগদাদী, সীরাতুন নুবালা, হায়াতে আবূ হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি, ত্ববাকাতুল হানাফিয়া ইত্যাদি)

৩য় হিজরী শতকঃ ৩য় হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, আল মুজতাহিদুল মুত্বলাক, ইমামুল আইম্মাহ্, হাকীমুল হাদীছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, হযরত ইমাম আবূ আব্দুল্লাহ আহমদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে হাম্বল ইবনে হিলাল ইবনে ইদ্রীস শাইবানী মারূযী বাগদাদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। তিনি মাযহাব চতুষ্টয়ের মধ্যে হাম্বলী মাযহাবের ইমাম ও প্রতিষ্ঠাতা। জন্ম মুবারকঃ ১৬৪ হিজরী, ওফাত মুবারকঃ ২৪১ হিজরী।
উনার লেখা কিতাব সমূহ (১) তাফসীরুল কুরআন (২) কিতাবুল মুসনাদ ইয়াহতাবী আলা আরবাঈনা আলাফি হাদীছ (৩) ত্বায়াতুর রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (৪) কিতাবুল আশরিবাতিছ ছগীর (৫) কিতাবুল ঈমান (৬) কিতাবুর রদ্দ্ আলাল জাহ্মিয়াহ (৭) কিতাবুয্ যুহ্দ (৮) কিতাবুল ইলাল ফিল হাদীছ (৯) কিতাবুল ফারায়িদ্ব (১০) কিতাবুল্ ফাদ্বায়িল (১১) কিতাবুল মাসায়িল (১২) কিতাবুল মানাসিখ (১৩) কিতাবু মানক্বিবিল ইমাম আলী ইবনে আবী ত্বালিব কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহু রদ্বিয়াল্লাহু আনহু (১৪) কিতাবুন্ নাসিখ ওয়াল মানসূখ মিনাল কুরআন। (কাশফুয্ যুনূন ৫ জি: ৪২ পৃষ্ঠা, ইকমাল ফী আসমায়ির রিজাল লিছাহিবিল মিশকাত, মিফতাহুস্ সায়াদা, আল হাদীছ ওয়াল মুহাদ্দিছূন)

৪র্থ হিজরী শতকঃ ৪র্থ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ ও ইমাম, মুতাকাল্লিম, মুফাস্সির, উছূলী, হানাফী মাযহাবের আক্বায়িদী ইমাম, ইমামুল হুদা, হযরত আবূ মানছূর মুহম্মদ ইবনে মাহমূদ ইবনে মাহমূদ মাতুরীদী হানাফী সমরকন্দী রহমতুল্লাহি আলাইহি। যিনি হানাফী মাযহাবের মুকাল্লিদ ও মুজতাহিদ ছিলেন। জন্ম মুবারক: ২৭০ মতান্তরে ২৭১ হিজরী। ওফাত মুবারক: ৩৩৩ হিজরী।
উনার লিখিত কিতাবঃ ১. তাবীলাতু আহলিস্ সুন্নাহ (তাফসীরুল কুরআন সম্পর্কিত) ২. তাবীলাতুল্ কুরআন ৩. শরহুল ফিক্বহিল আকবর আল মানসূব লিআবী হানীফাহ্ ৪. বয়ানু ওয়াহমিল্ মুতাযিলাহ্ ৫. মাখাযুশ্ শারায়িফী উছূলিল্ ফিক্বহ ৬. আদ্ দুরার ফী উছূলিদ্ দীন ৭. আর রদ্দু আলা তাহযীবিল কাবী ফিল জাদাল ৮. আক্বীদাতুল মাতুরীদী ৯. কিতাবুত তাওহীদ ওয়া ইছবাতিছ্ ছিফাত ১০. কিতাবুল জাদাল ১১. আল মাক্বালাতু, ইত্যাদি। (কাশফুয্ যুনূন লিহাজী খলীফাহ্ হানাফী ৬ খ- ৩০ পৃষ্ঠা, মুজামুল মুওয়াল্লিফীন ১১ খ- ৩০০ পৃষ্ঠা, ত্ববাকাতুল হানাফিয়াহ ২ খ- ১৮ পৃষ্ঠা, তাজুত্ তারাজিম লিইবনি ক্বাত্বলূবাগা ৪৩, ৪৪ পৃষ্ঠা, হাদিয়াতুল আরিফীন লিল বাগদাদী ২ খ- ৩৬, ৩৭ পৃষ্ঠা)

৫ম হিজরী শতকঃ ৫ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ ও ইমাম, হুজ্জাতুল ইসলাম, হযরত ইমাম আবূ হামিদ মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ গাজ্জালি তূসী শাফিয়ী আশয়ারী রহমতুল্লাহি আলাইহি। জন্ম মুবারক: ৪৫০ হিজরী, ওফাত মুবারক: ৫০৫ হিজরী।
উনার লিখিত কিতাবঃ আখেরাত (মৃত্যুর পরের জিবন), দাকায়েকুল আখবার (সৃষ্টির রহস্য), মিশকাতুল আনোয়ার, মুকাশাফাতুল কুলূব বা আত্মার আলোকমণি, জিবনের ক্ষতি, সবর ও শোকর, সৃষ্টি দর্শন, এহইয়া উলুমুদ্দীন, কিমিয়ায়ে সাআদাত, ধন সম্পদের লোভ ও কৃপণতা, সৎ কাজের আদেশ ও অসৎ কাজের নিষেধ, ইত্যাদি।

৬ষ্ঠ হিজরী শতকঃ ৬ষ্ঠ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, ক্বাদিরিয়া ত্বরীক্বার ইমাম, মাহবূবে সুবহানী, কুতুবে রব্বানী, আল গাউছুল আযম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, মুহিউদ্দীন, সাইয়্যিদ আবূ মুহম্মদ আব্দুল ক্বাদির ইবনে আবূ ছালিহ ইবনে আব্দুল্লাহ জীলানী হাম্বলী আশয়ারী বাগদাদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। জন্ম মুবারক: ৪৭১ হিজরী ১লা রমাদ্বান শরীফ ছুবহি ছাদিকের সময়, ওফাত মুবারক: ৫৬১ হিজরী ১১ রবীউছ ছানী সোমবার ছূবহি ছাদিকের সময়।

৭ম হিজরী শতকঃ ৭ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, চীশতিয়া ত্বরীক্বার ইমাম, গরীবে নেওয়ায, হাবীবুল্লাহ, হযরত খাজা সাইয়্যিদ মুঈনুদ্দীন হাসান চীশতী আজমিরী সাঞ্জিরী হানাফী মাতুরীদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। জন্ম মুবারক: ৫৩৬ হিজরী ১৪ই রজব ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীমি ছুবহি ছাদিকের সময়। ওফাত মুবারক: ৬৩৩ হিজরী। তিনি মোট ৯৭ বছর হায়াত মুবারক পেয়েছিলেন।

৮ম হিজরী শতকঃ ৮ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, সুলত্বানুল মাশায়িখ, সুলত্বানুল আউলিয়া, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, লাগবী, নাহ্বী, ছরফী, মানতিক্বী, হযরত ইমাম ছূফী নিযামুদ্দীন আউলিয়া মুহম্মদ ইবনে আহমদ ইবনে আলী বুখারী বাদায়ূনী দিহলবী হানাফী মাতুরীদী চীশ্তী রহমতুল্লাহি আলাইহি।গ্রহণযোগ্য মতে; জন্ম মুবারক: ৬৬০ হিজরী, ওফাত মুবারক: ৭৪৫ হিজরী। পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম শ্রেণীর মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির ও ফক্বীহগণের মধ্যে তিনি অন্যতম একজন।

৯ম হিজরী শতকঃ ৯ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, নকশ্বন্দিয়া ত্বরীকার ইমাম, আরিফ বিল্লাহ ছূফী শাইখ খাজা বাহাউদ্দীন মুহম্মদ ইবনে আহমদ যুহুরী ফারূক্বী নক্শবন্দী বুখারী হানাফী মাতুরীদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। জন্ম মুবারক: ৭২৮ হিজরী, ওফাত মুবারক: ৮০৮ হিজরী, মতান্তরে ৭৯১ হিজরী।

১০ম হিজরী শতকঃ ১০ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, ইমাম ও মুজতাহিদ, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, মুওয়াররিখ, আদীব, মুতাকাল্লিম, আল্লামা আলিম যাহিদ ইবনে কামালুদ্দীন আবূ বকর ইবনে মুহম্মদ ইবনে আবূ বকর ইবনে উছমান ইবনে মুহম্মদ ইবনে খাদ্বর ইবনে আইয়ূব ইবনে মুহম্মদ ইবনে হুমামুদ্দীন খুদ্বাইরী সুয়ূত্বী মিছরী তূলূনী শাফিয়ী আশয়ারী রহমতুল্লাহি আলাইহি। জন্ম মুবারক: ৮৪৯ হিজরী ৯ জুমাদাল ঊলা, ওফাত মুবারক: ৯১১ হিজরী।

১১তম হিজরী শতকঃ একাদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদিয়া ত্বরীকার ইমাম, ইমামু রব্বানী, কাইয়্যূমে যামানী, আফদ্বালুল আউলিয়া, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, মুওয়াররিখ, মুতাকাল্লিম, উছূলী, নাহবী, ছরফী, শাহ ছূফী হযরত শাইখ মুজাদ্দিদু আলফি ছানী আহমদ ইবনে আব্দুল আহাদ সিরহিন্দী ফারূক্বী নক্শবন্দী হানাফী মাতুরীদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। জন্ম মুবারক: ৯৭১ হিজরী, ওফাত মুবারক: ১০৩৪ হিজরী।

১২তম হিজরী শতকঃ দ্বাদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, ইমাম, মুজতাহিদ, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, উছূলী, শাহ ছূফী হযরত আল্লামা আবূ আব্দিল্লাহ শাহ ওয়ালিউল্লাহ আহমদ ইবনে আব্দুর রহীম দিহলবী উমারী হিন্দী হানাফী মাতুরীদী নক্শবন্দী মুজাদ্দিদী ক্বাদিরী চীশ্তী রহমতুল্লাহি আলাইহি। জন্ম মুবারক: ১১১৪ হিজরী, ওফাত মুবারক: ১১৭৬ হিজরী।

১৩তম হিজরী শতকঃ ত্রয়োদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদুয্ যামান, মুহম্মদিয়াহ ত্বরীকার ইমাম, আমীরুল মুমিনীন, খলীফাতুল্ মুসলিমীন, শহীদে বালাকোট, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, মুতাকাল্লিম, ছূফী হযরত আল্লামা সাইয়্যিদ আহমদ শহীদ বেরেলবী হানাফী মাতুরীদী নক্শবন্দী মুজাদ্দিদী ক্বাদিরী চীশ্তী হিন্দী রহমতুল্লাহি আলাইহি। তিনি হযরত শাহ আব্দুল আযীয মুহাদ্দিছ দিহলবী রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর প্রধান খলীফা এবং হযরত শাহ সূফী নূর মুহম্মদ নিযামপূরী রহমতুল্লাহি আলাইহি ও হযরত শাহ ছূফী কারামত আলী জৌনপূরী রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর শাইখ বা মুরশিদ ছিলেন। জন্ম মুবারক: ১২০১ হিজরী, শাহাদত মুবারক: ১২৪৬ হিজরী। (মাসিক আল বাইয়্যিনাত ৮২/১০৯)

১৪তম হিজরী শতকঃ চতুর্দশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদুয্ যামান, ইমাম, আমীরুশ্ শরীয়াহ ওয়াত ত্বরীক্বাহ, কুতুবুল আলম, শাহ ছূফী আলহাজ্জ হযরত মাওলানা আল্লামা আব্দুল্লাহিল্ মারূফ মুহম্মদ আবূ বকর ছিদ্দীক্বী ফুরফুরাবী হানাফী মাতুরীদী নক্শবন্দী মুজাদ্দিদী ক্বাদিরী চীশতী মুহম্মদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। তিনি অসংখ্য দৈনিক, পাক্ষিক, মাসিক পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা ও পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। জন্ম মুবারক: ১২৬৩ হিজরী, ওফাত মুবারক: ১৩৫৮ হিজরী। (ফুরফুরা শরীফ-এর ইতিবৃত্ত, হযরত পীর ছাহেব ক্বিবলার বিস্তারিত জীবনী লি বশীরহাটী)

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ পোষ্ট টা পড়ে যদি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্স এ আপনার মতামত জানাবেন আর আপনার বন্ধু বান্দব দের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন্না, আসসালামু আলাইকুম, ফি আমানিল্লাহ !!! আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে সঠিক বুজ দান করুন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: