8.23.2014

হক দল চেনার উপায়, বাতিলের স্বরূপ ও আজকের ডাঃ জাকির নায়েক।

অনেকেই বলেন, বর্তমান সময়ে হক দল এবং আল্লাহওয়ালা ব্যক্তি চেনা খুব কঠিন আসলেই কি তাই? তাহলেতো অপবাদটা আসে আল্লাহ পাকের উপরতিনি এমন পথ তৈরি করে রেখেছেন যে মানুষ তা খুজেই পায়নানাউযুবিল্লাহ

আসল ব্যপারটা হচ্ছে, মানুষ যখন নিজের লজিক, বিদ্যা, বুদ্ধি দিয়ে কোন পথ বা ধার্মিক ব্যক্তিত্ব খুঁজতে যাবে তখন অবশ্যই সেই পথ এবং সে রকম ব্যক্তিত্ব চেনা কঠিন হয়ে পড়বে, আর যখন শরিয়তের আলোকে খুঁজবে তখন হবে খুব সহজ

আসুন এক্ষেত্রে জাকির নায়েক কে উদাহরণ হিসেবে ধরে আমরা কথা বলি

উদাহরনঃ জাকির নায়েক চিনতে গিয়ে

প্রশ্নঃ জাকির নায়েক কোন হাদী নয়, সে বাতিল মত-পথ প্রচারকএ ব্যপারে সঠিক ধারণার অন্বেষণ

একজন ভক্তের জবাবঃ তিনি একজন ডাক্তারডাক্তার হতে হলে অনেক পড়াশুনা করতে হয়, মেধাবী হতে হয় তিনি অনর্গল বেদ-পুরান, বাইবেল থেকে রেফারেন্স দেন আবার কুরআন শরীফ থেকেও উত্তর দিতে সক্ষমতিনি কাঠ মোল্লাদের মত নাটাই পড়া আধুনিক মানুষ এবং মিডিয়াকে ব্যবহার করে সু-কৌশলে দ্বীন প্রচার করছেনদলে দলে বিধর্মীরা ইসলাম কবুল করছে

শরীয়ত উনার আলোকে জবাব, সাধারণ জনগোষ্ঠীর জন্যেঃ যিনি হাদী হবেন তিনি পরিপূর্ণ শরীয়তের অনুসারী হবেনহারাম কাজ করাতো প্রশ্নই আসেনা , মুস্তাহাব আমলও পালন করে থাকেন

ছবি তোলা, আকা রাখা শরীয়তে হারাম আর জাকির নায়েক সে হারাম কাজটিই করছে অহর্নিশি

নারী পুরুষ সবার জন্য পর্দা করা ফরযআর জাকির নায়েক বেপর্দা হয়ে নিজে হাদী সেজেছে

আল্লাহ পাক বলেন তোমাদের রসুলের মাঝে রয়েছে উত্তম আদর্শজাকির নায়েকের শরীরের মধ্যে রয়েছে সুন্নাহর পরিবর্তে বিজাতীয় পোশাকযেখানে গোঁড়া হিন্দু, বৌদ্ধ, ইহুদী, শিখ সম্প্রদায় খৃস্টানদের টাই ব্যবহার করে না সেখানে সে মুসলমান দাবী করে খৃস্টানদের অনুসরণ করছে। ( মাথায় টুপি=মুসলমান, গলায় টাই=খৃস্টান, সকল ধর্মের সহাবস্থান)

অসংখ্য আয়াত শরীফে ইরশাদ হয়েছে তোমরা ইসলামে পরিপূর্ণ দাখিল হও” “তোমরা মুসলমান না হয়ে মারা যেওনাএর অর্থ নিজের জীবনে আগে ইসলাম প্রতিষ্ঠা করতে হবেশরীয়তের নির্দেশ অমান্য করে, হারাম কাজ করে কাউকে দ্বীন বোঝাবার জন্য ঠিকাদারী দেয়া হয়নিঅথচ জাকির নায়েক সে কাজটিই করছেতাহলে শরীয়ত অনুযায়ী এটা স্পস্ট যে জাকির নায়েক হাদী নয়

আর তার বক্তব্য আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আকিদা ভুক্ত নয়যেমন সে বলে হুযুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মার চুকা হ্যায়। ( নাউযুবিল্লাহ) অথচ মহান আল্লাহ পাক তিনি কালামুল্লাহ শরিফে শহীদ গণের প্রসঙ্গে বলেন আর যারা আল্লাহর রাস্তায় শহীদ হন, তাদের মৃত বলো নাবরং তারা জীবিত, কিন্তু তোমরা তা বুঝ না(সূরা বাক্বারাহ ১৫৪) এমনকি আরো ব্যপক আকারে বলেন আর যারা আল্লাহর রাহে নিহত হয়, তাদেরকে তুমি কখনো মৃত মনে করো নাবরং তারা নিজেদের পালনকর্তার নিকট জীবিত ও জীবিকাপ্রাপ্ত (সূরা আল ইমরান ১৬৯) তাহলে হুযুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনাকে কিভাবে মৃত বলা যায়? আর নবী গণের কখনো ওয়ারিশ (উত্তরাধিকারী) হয়না কারণ ঊনারা জীবিত, শুধু মৃত ব্যক্তির ওয়ারিশ হয়উনারা শুধু আমাদের চোখের আড়ালে আছেনতাহলে দেখা গেল জাকির নায়েকের আকিদা হুযুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনার ব্যপারেই ভ্রান্ত এবং বক্তব্য চরম বেয়াদবী মুলকতাহলে এটা নিশ্চিত সে আল্লাহওয়ালা নয়

আর যারা এই সমস্থ আয়াতের ভুল ব্যক্ষা করে সমাজে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে তাদের সম্পর্কে পবিত্র কালামুল্লাহ শরিফে আল্লাহ্‌ সুবহানাহু ওয়া তালা ইরশাদ মোবারক করেন তিনিই আপনার প্রতি কিতাব নাযিল করেছেনতাতে কিছু আয়াত রয়েছে সুস্পষ্ট, সেগুলোই কিতাবের আসল অংশআর অন্যগুলো রূপকসুতরাং যাদের অন্তরে কুটিলতা রয়েছে, তারা অনুসরণ করে ফিৎনা বিস্তার এবং অপব্যাখ্যার উদ্দেশে তন্মধ্যেকার রূপকগুলোরআর সেগুলোর ব্যাখ্যা আল্লাহ ব্যতীত কেউ জানে নাআর যারা জ্ঞানে সুগভীর, তারা বলেনঃ আমরা এর প্রতি ঈমান এনেছিএই সবই আমাদের পালনকর্তার পক্ষ থেকে অবতীর্ণ হয়েছেআর বোধশক্তি সম্পন্নেরা ছাড়া অপর কেউ শিক্ষা গ্রহণ করে না (আল ইমারান ৭) দেখুন যেখানে আল্লাহ্‌ রাব্বুল আলামিন নিজে বলতেছেন তিনি ছাড়া আর কেউ এসকল আয়াতের ব্যক্ষা কেউ জানেনা সেখানে সে কিভাবে অপব্যক্ষা করে রাসুলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) উনাকে অপমান করছে, আর যে রাসুলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) উনাকে কঠাক্ষ করে সে কখনো মোমেন তো দূর মুসলমান ই হতে পারেনা।

হক দল চেনার উপায়, বাতিলের স্বরূপ ও আজকের ডাঃ জাকির নায়েক।
হক দল চেনার উপায়, বাতিলের স্বরূপ ও
আজকের ডাঃ জাকির নায়েক।
জ্ঞানীদের জন্য জবাবঃ কিছুদিন আগে আন্তঃধর্ম সম্মেলন হয়েছিল ইসলাম উনার জন্ম যেখানে সেই পবিত্র মক্কা শরীফে ( না রিয়াদ, না দাহরাইন, না তাবুক ইত্যাদি অঞ্চলে) এই সম্মেলনের উদ্দেশ্য হচ্ছে পৃথিবীতে সকল ধর্ম সহনশীল ভাবে অবস্থান করবে, প্রয়োজনে কাউকে কিছু ছাড় দিয়ে হলেওমুসলমানদের দিতে হবে সবচেয়ে বড় ছাড় আর তা হচ্ছে পবিত্র কুরআন শরীফ থেকে জিহাদ সম্পর্কিত, ইহুদি নাসারা সম্পর্কিত ৭০০ আয়াত শরীফ বাদ দিয়ে। (নাউযুবিল্লাহ)এই সম্মেলনের আয়োজক ছিল সঊদি বাদশা আব্দুল্লাহঅনেকে মনে করছেন তিনিই হয়তো প্রথম পরিকল্পনাকারীআসলে তা নয়আল আজহারের প্রয়াত চ্যন্সেলর তান্তাউয়ী সে যখন অনেক বছর আগে ভেটিকানে পোপের সাথে দেখা করতে যায় তখনও ৭০০ আয়াত শরীফ বাদ দেবার আলোচনা প্রসঙ্গে এসেছিলঅর্থাৎ এই এজেন্ডা অনেক পুরোনোউল্লেখ্য, হুযুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনাকেও কাফিররা একই প্রস্তাব দিয়েছিলতিনি বলেছিলেন তোমাদের ধর্ম তোমাদের কাছে আর আমাদের ধর্ম আমাদের কাছে

এই এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ নানা এজেন্ট রয়েছেআজকের জাকির নায়েকের পিস টিভির অর্থায়ন হয় সউদী আরবের মাধ্যমেসে নানা ধর্মের মধ্যেই আলোকিত অনেক কিছু খুজে পায় ( নাউযুবিল্লাহ) তবে বলে ইসলাম শ্রেষ্ঠকিন্তু কতটুকু শ্রেষ্ঠ? যতটুকু এবং যেভাবে জাকির নায়েক ব্যখ্যা করছেতাকে দিয়ে বলানো হচ্ছে

তাহলে আসুন আমাদের প্রথম কথায় ফিরে আসিমানুষ যখন নিজের লজিক, বিদ্যা, বুদ্ধি দিয়ে কোন পথ বা ধার্মিক ব্যক্তিত্ব খুঁজতে যাবে তখন অবশ্যই সেই পথ এবং সে রকম ব্যক্তিত্ব চেনা কঠিন, যেভাবে জাকির নায়েকের ভক্তরা বিভ্রান্ত হচ্ছেআর যখন শরিয়ত উনার আলোকে খোঁজা হবে তখন খুব সহজ। আসুন আমার আমাদের ক্ষুদ্র মস্তিস্কের ভাবনা দিয়ে বিচার না করে শরীয়ত উনার মাধ্যমে হক-নাহক কে পার্থক্য করিধর্ম ব্যবসায়ী আর আল্লাহওয়ালা উনাদের পার্থক্য করি। আর কিভাবে চিনবেন কে হক্ব পথে আছে তার ধারনা এই পোষ্টে পাবেন পোষ্ট লিঙ্কঃ এখানে। 

আর জাকির নায়েক সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এই পোষ্টগোলা পড়তে পারেন।  পোষ্ট ১পোষ্ট ২পোষ্ট ৩পোষ্ট ৪ 

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ পোষ্ট টা পড়ে যদি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্স এ আপনার মতামত জানাবেন আর আপনার বন্ধু বান্দব দের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন্নাআসসালামু আলাইকুমফি আমানিল্লাহ !!! আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে সঠিক বুজ দান করুন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: