9.24.2014

আমরা কেন আউলিয়া কেরামের মাজার জিয়ারত করি ???

আমরা কেন আউলিয়া কেরামের মাজার জিয়ারত করি ?????? কেন কেন কেন ??? জানতে খুব ইচ্ছে করছে, তাই না!!! শুনেন তাহলে ------ 

কারণ আল্লাহর ওলীরা আল্লাহর কুদরতের প্রকাশস্থল আবাক হওয়ার কিছুই নাই! পবিত্র হাদিসে কুদসীতে মহান আল্লাহ এরশাদ মোবারক করেছেন, "আমার কতিপয় বান্দা অধিক পরিমাণে নফল ইবাদত করতে করতে আমার নিকটবর্তী হতে থাকে এক পর্যায়ে এসে আমি নিজেই তাঁকে মুহাব্বত করিআর যখন আমি তাঁকে মুহাব্বত করি, তখন তাঁর মুখ আমার মুখ হয়ে যায় যা দ্বারা সে কথা বলে তাঁর কান আমার কান হয়ে যায়, যা দ্বারা সে শুনে, তার চক্ষু আমার চক্ষু হয়ে যায়, যা দ্বারা সে দেখে, তাঁর হাত আমার হাত হয়ে যায়, যা দ্বারা সে ধরে, তাঁর পা আমার কুদরতী শক্তিতে রূপান্তরিত হয়, যা দ্বারা সে চলাফেরা করে, সে যদি আমার কাছে কিছু প্রার্থনা করে আমি তা অবশ্যই প্রদান করি।" [বুখারী শরীফ, দ্বিতীয় খন্ড, ৯৬৩ পৃষ্ঠা]

বুঝলেন তো! আমরা আউলিয়ায়ে কেরামের মাজার জিয়ারত করে তাঁদের নিকট দুনিয়া ও আখিরাতের কল্যাণের জন্য দোয়া চাই আমাদের পক্ষ হয়ে তাঁরা আল্লাহর কাছে কিছু প্রার্থনা করলে, আল্লাহ তা অবশ্যই কবুল করেনবর্ণিত হাদিসটিই তার অকাট্য দলিল বিরোদ্ধবাদীদের মনে শয়তান কুমন্ত্রনা দিতেছে, তাই না? কুমন্ত্রনা!!! এটা আবার কি? বলবে, আউলিয়ায়ে কেরামের নিকট জীবিত অবস্থায় চাওয়া যাবে ইনতিকালের পর চাইলে, শিরক! শিরক!! শিরক!!!

আমরা কেন আউলিয়া কেরামের মাজার জিয়ারত করি ???
আমরা কেন আউলিয়া কেরামের মাজার জিয়ারত করি ???
আচ্ছা জীবিতদের কাছে চাইলে শিরক হবে না কেন? উহ, বুঝতে পারছি, মনে হয় জীবিতরা বিরোদ্ধবাদিদের খোদাতাই জীবিতদের কাছে চাইলে শিরক হবে না আহলে সুন্নত ওয়াল জামা'আতের আক্বিদা কিন্তু এইরুপ স্ববিরোধী নয় আমাদের আক্বিদা শরতের মেঘমুক্ত আকাশের পূর্ণিমা শশীর মত সুস্পষ্ট আসুন এবার আমরা বাতিলদের মুখে থালা লাগিয়ে দিই যেন আর বক বক করতে না পারে হযরত আবদুল হক মুহাক্কিক দেহলভী রহমতুল্লাহি আলাইহি তার লিখিত মিশকাত শরীফের ব্যাখ্যাগ্রন্থ আশ'আতুল লোম'আত এর যিয়ারাতুল কুবুর শীর্ষক অধ্যায়ের প্রারম্ভে ইমাম গাযযলী রহমতুল্লাহি আলাইহি এর একটা অভিমত উদ্ধৃতি দেন, যে ইমাম গাযযালী বলেন,"মাঁই ইউসতামাদ্দু ফি-হায়াতিহী-ইউসতামাদ্দু বা-দা ওফাতিহ" অর্থাৎ যার নিকট তাঁর জীবদ্দশায় সাহায্য চাওয়া যায়, তাঁর ওফাতের পরও তাঁর নিকট সাহায্য চাওয়া যায় [আশ'আতুল লোম'আত, যিয়ারাতুল কবুর শীর্ষক অধ্যায়] আপনি যদি না মানেন তাহলে ইমাম গাজ্জালি কি শিরক কারি?

হযরত আবদুল হক মুহাক্কিক দেহলভী রহমতুল্লাহি আলাইহি আরও উল্লেখ করেন, " কেউ কেউ বলে থাকেন জীবিতদের ক্ষমতা অধিকতর প্রবল কিন্তু আমি বলবো ওফাতপ্রাপ্ত বুযর্গদের ক্ষমতা আরও অধিক আউলিয়া কেরাম সৃষ্টির কল্যাণার্থে এ ক্ষমতা প্রয়োগ করেনএই ক্ষমতা তাদের রূহের মধ্যেরূহ হচ্ছে স্থায়ী। [আশ'আতুল লোম'আত]

আর হ্যাঁ, একটি কোরআনের আয়াত শরীফের বঙ্গানুবাদ পড়ুনঃ- "আর যারা আল্লাহর রাস্তায় নিহত হয়; তাদেরকে তোমরা মৃত বলো না বরং তারা জীবিত কিন্তু তোমরা তা বুঝ না" [সুরা আলবাকারাহ, আয়াত শরীফঃ১৫৪]

এবং আরেকটি আয়াত।

আর যারা আল্লাহর রাহে নিহত হয়, তাদেরকে তুমি কখনো মৃত মনে করো নাবরং তারা নিজেদের পালনকর্তার নিকট জীবিত ও জীবিকাপ্রাপ্ত [সুরা আল ইমরান, আয়াত শরীফঃ ১৬৯]

এই দুই আয়াত দ্বারা বুঝা গেলো, আল্লাহর আওলিয়া ই কেরাম রা এবং সাহাবায়ে [রাদ্বিয়াল্লাহু তা-লা আনহুমগন ] জীবিত এমনকি রিজিকপ্রাপ্ত। এখন যদি আপনি উল্টা তর্ক করতে চান তাহলে এই আয়াত খানা দেখে নিবেন এই রূপক অর্থের আয়াত গোলার, আল্লাহ্‌ সুবাহানাহু ওয়া তায়ালা এরশাদ মোবারক করেন তিনিই আপনার প্রতি কিতাব নাযিল করেছেনতাতে কিছু আয়াত রয়েছে সুস্পষ্ট, সেগুলোই কিতাবের আসল অংশআর অন্যগুলো রূপকসুতরাং যাদের অন্তরে কুটিলতা রয়েছে, তারা অনুসরণ করে ফিৎনা বিস্তার এবং অপব্যাখ্যার উদ্দেশে তন্মধ্যেকার রূপকগুলোরআর সেগুলোর ব্যাখ্যা আল্লাহ ব্যতীত কেউ জানে নাআর যারা জ্ঞানে সুগভীর, তারা বলেনঃ আমরা এর প্রতি ঈমান এনেছিএই সবই আমাদের পালনকর্তার পক্ষ থেকে অবতীর্ণ হয়েছেআর বোধশক্তি সম্পন্নেরা ছাড়া অপর কেউ শিক্ষা গ্রহণ করে না[সুরা আল ইমরান, আয়াত শরীফঃ ৭]

সর্বশেষ বাতিলের শত অপপ্রচারের মধ্যেও যারা বিবেকের চক্ষু জাগ্রত রেখেছেন তাদের কাছে আমার প্রশ্ন থাকবে, আপনারা কি এই যুগের ওহাবী-দেওবন্দী-জামাতি কাট মোল্লাদের কথা মানবেন ? নাকি কোরআনের ? ইমাম গাযযালী, শায়েখ আব্দুল হক মুহাদ্দেস দেহলভী রহমাতুল্লাহি আলাইহির মত বিশ্ববিখ্যাত দার্শনিক এবং জগত বিখ্যাত আলেমে দ্বীনের ফয়সালা মেনে নিবেন?

সিদ্ধান্ত নেওয়ার দায়িত্ব কিন্তু আপনার আল্লাহ আমাদের বুঝার তৈফিক দান করুনআমীন।

নবী করিম (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, আমাকে জমিনের সমস্ত খণি সমূহের চাবি দেওয়া হয়েছে বা ধন-ভান্ডারের মালিক বানানো হয়েছে (বোখারী শরীফ, ২য় খন্ড, পৃষ্টাঃ ১০৪২।) --- সুবহানাল্লাহ।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ পোষ্ট টা পড়ে যদি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্স এ আপনার মতামত জানাবেন আর আপনার বন্ধু বান্দব দের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন্নাআসসালামু আলাইকুমফি আমানিল্লাহ !!! আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে সঠিক বুজ দান করুন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

1 comment: