3.05.2015

মুক্তমনা ব্লগের উদ্দেশ্য কি শুধুই মুক্তবুদ্ধি চর্চা না অন্যকিছু ?

মুক্তমনা ব্লগের উদ্দেশ্য কি শুধুই মুক্তবুদ্ধি চর্চা না অন্যকিছু ?
মুক্তমনা ব্লগের উদ্দেশ্য কি শুধুই মুক্তবুদ্ধি চর্চা না অন্যকিছু ?
মুক্তমনা ব্লগের উদ্দেশ্য কি শুধুই মুক্তবুদ্ধি চর্চা না অন্যকিছুঃ ২০০১ সালে মুক্তমনা ব্লগ প্রতিষ্ঠা করে অভিজিৎ রায়ব্লগটিতে যে পরিমাণ তথ্য ও যে ধরনের তথ্য সংরক্ষিত আছে সেটা পড়লে একটা মানুষ সহজেই অনুধাবন করতে পারবে, একটি বিশেষ উদ্দেশ্য ও টার্গেট নিয়েই ব্লগটি শুরু হয়েছিলো একটি মহলব্লগটি কি উদ্দেশ্য বা লক্ষ্য নিয়ে তার যাত্রা শুরু করেছিলো সেটা আমি পরে আলোচনা করবো, তার আগে জানা উচিত ব্লগটিতে কি ধরনের পোস্ট সংবলিত আছে, আসুন দেখিঃ

১) কোরান কি অলৌকিক গ্রন্থ? –

২) কোরান কি অলৌকিক গ্রন্থ? -

৩) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১)

৪) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়২)

৫) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়৩)

৬) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়৪)

৭) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়৫)

৮) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়৬)

৯) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়৭)

১০) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়৮)

১১) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়৯)

১২) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১০)

১৩) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১১)

১৪) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১২)

১৫) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১৩)

১৬) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১৪)

১৭) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১৫)

১৮) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১৬)

১৯) ইসলামে বর্বরতা (দাসত্ব-অধ্যায়১৭ শেষ পর্ব)

২০) উম হানী ও নবী মুহাম্মদ (পর্ব-১)

২১) উম হানী ও নবী মুহাম্মদ (পর্ব-২)

২২) উম হানী ও নবী মুহাম্মদ (পর্ব-৩)

২৩) উম হানী ও নবী মুহাম্মদ (পর্ব-৪)

২৪) উম হানী ও নবী মুহাম্মদ (শেষ পর্ব-৫)

উপরের লেখাগুলোকে যদি কেউ মুক্তবুদ্ধির চর্চা বলে চালাতে চান তবে ভুল করবেন, বরং প্রত্যেকটি লেখা ইচ্ছাকৃত ইতিহাস বিকৃতি, রুচিহীন ব্যাখ্যা ও উদ্দেশ্যমূলকভাবে ধর্মকে আঘাত করার জন্যই লেখা হয়েছে, তা প্রতিটি লাইনে লাইনে হাড়ে হাড়ে টের পাওয়া যায়বিশেষ করে, মুসলমানদের নবী ও তার স্ত্রীদের নিয়ে অশ্লীল গল্প রচনা করা হয়েছে, যা পুরোই উদ্দেশ্যমূলকভাবে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার জন্যএ ব্লগটিকে এ্যানালাইসিস করার পর কয়েকটি বিষয় বোঝা যায়:
১) কোন একটি বিশেষ মহল বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে ২০০২ সালে মুক্তমনার কাজ শুরু করে
২) এর পেছনে প্রচুর বিদেশী ফান্ডিং আছে এবং ধর্মহীন কতিপয় বাংলাদেশী শুধু টাকার লোভে এই অপকর্মে যোগ দিয়েছে
৩) মুক্তমনা প্ল্যাটফর্ম বানিয়ে, সকল ধর্মবিদ্বেষীর মিলনস্থল তৈরী করা হয়েছে
৪) ব্লগটির উদ্দেশ্য লক্ষ্য কয়েক ধরনের হতে পারে, যেমন: এ বিকৃত লেখাগুলো পড়ে বাংলাদেশের শিক্ষিত ও তরুণ সমাজ ধর্মবিদ্বেষী হয়ে উঠবে
৫) অথবা এ লেখাগুলো পড়ে যদি মুসলমানরা ক্ষেপে যায়, কারো গায়ে আঘাত করে, তখন সেটাকে অজুহাত করে বাংলাদেশে জঙ্গী বিস্তার হচ্ছে এমন দলিল দাড় করানো যাবেতখন সাম্রাজ্যবাদীদের দেশ দখলের একটি অজুহাত তৈরী হবে
৬) অভিজিৎ মারা যাওয়ার পর আমেরিকা, ইইউ, জার্মানি, ব্রিটেন যে পরিমাণ লম্ফ-ঝম্ফ করছে তাতে অভিজিৎ কাদের মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়ন করছিলো তা সহজেই অনুমেয়
৭) দীর্ঘ ১৩ বছর যাবত এ ধরনের একটি ধর্মীয় উস্কানিমূলক ওয়েব সাইট কিভাবে প্রকাশ্যে চলছে তা সতিই সন্দেহজনক
৮) আইনের ৫৭ ধারায় এ ধরনের ওয়েবসাইট চালানো সম্পূর্ণ বেআইনী ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ হওয়ার পরও কেন প্রশাসন এতোদিন এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি তা বোঝা যাচ্ছে না
৯) ২০১২ সালে হাইকোর্টের আদেশের পরও কেন বিটিআরসি এ ধর্মবিদ্বেষী ওয়েব সাইটি বন্ধ করেনি তাও সন্দেহজনক

ইতিমধ্যে মুক্তমনা ব্লগের দুজন ব্লগার (রাজীব হায়দার ও অভিজিৎ) নিহত হয়েছে এবং ৪ জন ব্লগার (আসিফ মহিউদ্দিন, মশিউর রহমান বিপ্লব, রাসেল পারভেজ, সুব্রত শুভ) গ্রেফতার হয়েছিলো, যাদের অপকর্ম দেশজুড়ে সৃষ্টি করেছিলো চরম বিশৃঙ্খলতাএত বড় বড় ঘটনা ঘটার পরও কেন ব্লগটি ও তাদের লেখকদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকার ১৩ বছর ধরে কোন পদক্ষেপ নেয়নি, তা সতিই বিষ্ময়করসরকার যদি এখনও এ ব্লগ ও তাদের লেখকদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ না নেয়, এর দ্বারা আরো বড় কোন নাশকতামূলক ঘটনা ঘটতে পারেতখন সরকারের ক্ষমতা তো স্বাভাবিক, দেশের স্বাধীনতা-স্বার্বভৌমত্বও আমাদের হারাতে হতে পারে

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ পোষ্ট টা পড়ে যদি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্স এ আপনার মতামত জানাবেন আর আপনার বন্ধু বান্দব দের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন্নাআসসালামু আলাইকুমফি আমানিল্লাহ !!! আল্লাহ তায়ালা আমাদের সবাইকে সঠিক বুজ দান করুন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: