6.29.2016

পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনের আমল কি কি করবেন?

পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনের আমল কি কি করবেন?
পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনের আমল কি কি করবেন?
পবিত্র লাইলাতুল কদর সম্পর্কে আমরা সকলে মোটামোটি কম বেশি অবগত, তাই এই পবিত্র রাতে অন্তত একটি ছোট কিছু আমল করার সম্পূর্ণ ভাবে চেষ্টা করবঃ এই রাত্রটি যেহেতু এক হাজার রাত্রি বা ৮৩ বছর ৩ মাসের থেকে উত্তম রাত্রি সেহেতু এই রাত্রিতে বেশি বেশি নফল ইবাদত করার চেষ্টা করবো

১/ পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনে প্রতিদিন মাগরিবের নামাযের পর থেকে ফজরের নামাযের আগ পর্যন্ত যে কোন সময়, পরিবারের প্রতি সদস্যর জন্য কমপক্ষে ৫ টাকা নিয়ত করে দান করব, কারণ, মা, বোনদের মত পরিবারের সদস্যরা সব সময় বাড়ির বাহিরে বের হতে পারেন না।
২/ পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনে প্রতিদিন মাগরিবের নামাযের পর থেকে ফজরের নামাযের আগ পর্যন্ত যে কোন সময়, কমপক্ষে ওজু অবস্থায় ১০ বার সূরা ইখলাস পাঠ করবো কেও এটার থেকে বেশি চাইলেও পাঠ করতে পারেন, কমপক্ষে ১০ বার পাঠ করলে ২ টি উপকার হবে।
(ক) সম্পূর্ণ ৩ খতম কোরআন শরিফ পাঠ করার সওয়াব হবে।
(খ) পাঠ কারির জন্য জান্নাতে একটি আলিশান মহল বানানো হবে, সে মহলের ৬০ হাজারটি জান্নাতি স্বর্ণ, রৌপ্যের দরজা থাকবে। এই দুনিয়া যদি ৫০০ বার বিক্রি করা হয় তাও জান্নাতের একটি ইটের মূল্য হবে না।
৩/ পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনে প্রতিদিন মাগরিবের নামাযের পর থেকে ফজরের নামাযের আগ পর্যন্ত যে কোন সময়, কমপক্ষে একবার সূরা ইয়াসিন শরীফ পাঠ করবেন, সম্পূর্ণ ১০ খতমে কোরআন পাঠ করার সওয়াব পাবেন।
৪/ পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনে প্রতিদিন মাগরিবের নামাযের পর থেকে ফজরের নামাযের আগ পর্যন্ত যে কোনো সময়, কমপক্ষে ৪ রাকাত নফল নামাজ আদায় করবেন।
৫/ পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনে প্রতিদিন মাগরিবের নামাযের পর থেকে ফজরের নামাযের আগ পর্যন্ত যে কোনো সময়, কমপক্ষে ১০০ বার "সুবহান আল্লাহ্" তসবিহ পাঠ করবেন, এর ফলে ১ হাজারটি গুনাহ্ মাফ হবে আর ১ হাজারটি নেকি আমল নামায় সওয়াব হিসেবে লিখা হবে।
৬/ পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনে প্রতিদিন এশা ও ফজরের নামায জামাতের সাথে আদায় করবেন, তাহলে সম্পূর্ণ রাত ঘুমিয়ে থাকলেও, সম্পূর্ণ রাত জেগে নফল নামাজ পড়ার সওয়াব পাবেন।
৭/ পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসের শেষ ১০ দিনে প্রতিদিন মাগরিবের নামাযের পর থেকে ফজরের নামাযের আগ পর্যন্ত যে কোন সময়, সূরা বাকারা শরীফের শেষের ২টি আয়াত পাঠ করে নিবেন।

ইনশা আল্লাহ্ উপরোক্ত প্রতিটি আমলই ৮৩ বছর ৩ মাসের হয়ে যাবে। হে মহান আল্লাহ পাক আপনি আমাদের সবাইকে এই পবিত্র লাইলাতুল কদরে উপরোক্ত সকল আমল করার তৌফিক দান করুন আমীন।


ইসলাম প্রচারের নেক ইরাদা থাকলে এই Post টি Share করে অন্যদেরকেও উপরোক্ত আমল করার দাওয়াত দিন এবং সওয়াবের ভাগিদার হোন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: