8.29.2016

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির বঙ্গবন্ধু স্মৃতি যাদুঘর পরিদর্শন ও আমরা বেকুব বাংলাদেশীরা


মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ঘুরে দেখছে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি যাদুঘর, আর ভাবছে- আহারে! বাংলাদেশীরা কত বোকা, যেই শেখ মুজিবুর রহমান কে আমরা মারলাম, সেই বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর ঘটনা কি না আমাকে দেখানো এবং শোনানো হচ্ছে।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন রাশিয়ান ব্লকের লোক। রাশিয়ার বিরোধীতা করতে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সর্বাত্মক বিরোধীতা করেছিলো আমেরিকা। এমনকি পাকিস্তানকে সাহায্য করতে যুদ্ধজাহাজ পর্যন্ত পাঠিয়ে ছিলো তারা। দেশভাগ ঠেকাতে না পারলেও বঙ্গবন্ধুকে তারা ছাড় দেয়নি। ১৯৭৫ সালে সিআইএ তার এজেন্টদের মাধ্যমে হত্যা করে বঙ্গবন্ধুকে। তবে আজকে আওয়ামীলীগ সেই স্মৃতি অনেকটাই ভুলে গিয়েছে।


আওয়ামীলীগের একটা বড় অংশ যুক্ত হয়েছে সিআইএ ব্লকের সাথে অর্থাৎ আমেরিকান গোয়েন্দা সংস্থার সাথে। মার্কিন চামচা ভারতের বর্তমান মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর অতিরিক্ত ইন্ডিয়া প্রেমের কারণে আমেরিকার দিকে অনেকটাই এগিয়ে গেছে আওয়ামী সরকার। এতে ইচ্ছা অনিচ্ছায় অনেকটা বঙ্গবন্ধুর পরিণতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দলটি। আওয়ামীলীগের উচিত ছিলো অনেক আগেই দল থেকে মার্কিন লবির লোকগুলোকে বের করে দেয়া। কিন্তু সেটা তারা করেনি, বরং সেই মার্কিনলবির হাতে ক্ষমতা দিয়ে আরো শক্তিশালী করা হয়েছে। আসলে ক্ষমতার জন্য রাজনীতিবিদরা জনগণের দিকে না তাকিয়ে যখন বিদেশী প্রভুদের দিকে তাকিয়ে থাকে, তখনই ঘটে বিপত্তি। মীর জাফরের পরিণতির কথা সবার স্মরণ করা উচিত। মীর জাফর ব্রিটিশদের সাথে হাত মিলিয়ে দেশের সাথে বেঈমানি করেছিলো ঠিকই, কিন্তু ক্ষমতা পেয়ে ব্রিটিশরা সেই মীর জাফরকেই আস্তাকুড়েতে নিক্ষেপ করেছিলো। ঐতিহাসিক সত্যটা কিন্তু এমনই তেতো।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: