8.11.2016

আপনি কি জানেন আত্মহত্যা একটি জঘন্যতম মহাপাপ যার চিরস্তায়ী ঠিকানা জাহান্নাম

আত্মহত্যা করা ইসলামী শরীআতে একটি জঘন্যতম পাপ যার একমাত্র শাস্তি হল জাহান্নাম। নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি আত্মহত্যাকারীর জানাযা উনার ছালাত আদায় করেননি (মুসলিম শরীফ হা/১৬২৪)। এর থেকেই অনুমান করা যায় আত্মহত্যা কত বড় একটি পাপ। আত্মহত্যা ইহকাল পরকাল উভয়টি ধ্বংস করে দেয়। তা যে কোনো কারণেই সংঘটিত হোকনা কেন।

পবিত্র আল-কুরআন উল কারীম এ আত্মহত্যা প্রসঙ্গ যা বলা হয়েছে তা নিম্নরূপ

মহান আল্লাহ পাক সুবাহানাহু ওয়া তায়ালা তিনি পবিত্র পবিত্র আল-কুরআন উল কারীম এ এরশাদ মোবারক করেছেন, ‘আর তোমরা আত্মহত্যা করো না, নিশ্চয় মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদের প্রতি দয়াশীল। [পবিত্র সুরা নিসা শরীফঃ আয়াত শরীফ ২৯]

মহান আল্লাহ পাক সুবাহানাহু ওয়া তায়ালা তিনি আরো বলেন- তোমরা তোমাদের নিজেদের ধ্বংসের মধ্যে নিক্ষেপ করো না।’(সূরা বাকারা শরীফঃ আয়াত শরীফ ১৯৫ আয়াত)।

পবিত্র আল-হাদিস শরীফে আত্মহত্যা প্রসঙ্গ যা বলা হয়েছে তা নিম্নরূপ

নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেছেন, ‘তোমাদের পূর্ববর্তী লোকদের মধ্যে এক ব্যক্তি ছিল। সে আহত হয়ে ছটফট করতে লাগল। এ অবস্থায় সে ছুরি নিয়ে নিজেই নিজের হাত কাটল ও ব্যাপক রক্তপাত ঘটল এবং তার মৃত্যু হলো। নাউযুবিল্লাহ!! তখন মহান আল্লাহ পাক তিনি এ ব্যক্তি সম্পর্কে বলেছেনঃআমার এ বান্দা নিজের ব্যাপারে খুব তাড়াহুড়া করে ফেলেছে। এ কারণে আমি তার প্রতি জান্নাত হারাম করে দিয়েছি। [বোখারী শরীফঃ হা/১২৭৫]

নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেছেন, যে ব্যক্তি কোন লৌহ অস্ত্রাঘাতে আত্মহত্যা করবে, তাকে সে লৌহ অস্ত্র দিয়েই জাহান্নামে শাস্তি দেয়া হবে। (অর্থাৎ যেভাবে লৌহ অস্ত্র দিয়ে আত্মহত্যা করেছিল, ঠিক সেভাবে সে জাহান্নামে আত্মহত্যা করতে থাকবে) [বুখারী শরীফঃ হা/১২৭৫]

আবু হোরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেছেনঃ যে ব্যক্তি শ্বাসরোধ করে আত্মহত্যা করবে, সে জাহান্নামেও এভাবে আত্মহত্যা করবে। আর যে ব্যক্তি অস্ত্রের আঘাতে আত্মহত্যা করবে সে জাহান্নামেও এভাবে আত্মহত্যা করতে থাকবে (বুখারী শরীফঃ হা/১২৭৬)।

আবু হোরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি বলেছেনঃ যে ব্যক্তি পাহাড় থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করবে, সে জাহান্নামে অনুরুপভাবে (পহাড় থেকে লাফিয়ে পড়ে পড়ে) আত্মহত্যা করতেই থাকবে। এবং উহা হবে তার স্থায়ী বাসস্থান। যে ব্যক্তি বিষ পানে আত্মহত্যা করবে, তার বিষ তার হাতে থাকবে, জাহান্নামে সে সর্বক্ষণ বিষ পান করে আত্মহত্যা করতে থাকবে। আর উহা হবে তার স্থায়ী বাসস্থান। আর যে ব্যক্তি লৌহাস্ত্র দিয়ে আত্মহত্যা করবে, সে লৌহাস্ত্রই তার হাতে থাকবে । জাহান্নামে সে তা নিজ পেটে ঢুকাতে থাকবে, আর সে খানে সে চিরস্থায়ীভাবে থাকবে (বুখারী শরীফঃ হা/৫৩৩৩, মুসলিম শরীফঃ হা/১২৭৬)।

নূরে মুজাসসাম হাবিবুল্লাহ হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি যে বস্তু দ্বারা দুনিয়ায় আত্মহত্যা করবে, তাকে কিয়ামত দিবসে সে বস্তু দ্বারাই শাস্তি দেয়া হবে। যে ব্যক্তি কোন মুমিন ব্যক্তিকে অভিসম্পাত করল সে যেন তাকে হত্যা করে ফেলল, আর যে ব্যক্তি কোন মুমিন ব্যক্তিকে মিথ্যা অপবাদ দিল সেও যেন তাকে হত্যা করে ফেললো (বুখারী শরীফঃ হা/৫৫৮৭, ৫৬৪০)।


আত্মহত্যার মত এই জঘণ্য পাপ থেকে নিজে বিরত থাকুন, অপরকেও বিরত রাখুন। মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সকলকে সমস্ত পাপ কাজ থেকে বিরত রেখে পবিত্র আল-কুরআন উল কারীম ও পবিত্র সুন্নাহ মোবারক তথা  হাদিস শরীফের পথে পরিচালিত করুন (আমীন)।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: