9.21.2016

বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি দিলীপ বলছে ‘বাংলাদেশ আমাদের ছিল, আবার আমাদের হবে


মোটা হলেই যেমন দারোগা হওয়া যায় না, তেমনি বিশাল বাহিনী থাকলেই সামরিক শক্তি হওয়া যায় না। বিশ্বের তাবৎ সামরিক জার্নাল ঘাঁটলে এটাই প্রতিয়মান হয়। বিশ্বব্যাংকের সামরিক ডাটা অনুযায়ী বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর সদস্য সংখ্যা প্রায় ২ লাখ ২১ হাজার। পক্ষান্তরে ভারতের ২৬ লাখ ৫০ হাজারের মত। চীনের ৩০ লাখের মতো। এবং পাকিস্তানের প্রায় ৯ লাখ ৫০ হাজার। চীন ও পাকিস্তানের প্রসংগ টেনে আনা হলো এই জন্য যে ভারতের সামরিক সক্ষমতার সব চেয়ে বড় অংশ নিয়োজিত থাকে এই দুদেশের সম্ভাব্য আক্রমন ঠেকাতে।

এইবার আমরা যদি মনে করি ভারত সত্যি আমাদের দেশের দিকে অভিযান চালাতে পারে, তবে কিভাবে তা করবে। প্রায় ২৬ লাখ ৫০ হাজার সেনার ভেতরে সে কয়জনকে বাংলাদেশে অভিযানের জন্য প্রেরন করতে পারবে। আর আমাদের সামরিক বাহিনীই বা কি করবে? ভারতের এই বিশাল সেনাবাহিনীর মধ্যে বেশিরভাগ মোতায়েন থাকে চীন ও পাকিস্তান সীমান্তে। চীনের সীমান্তে একটু ঢিলে ঢালা ভাব হলে ৮০ হাজার বর্গমাইলের অরুনাচল প্রদেশ আর লাদাখ সংলগ্ন ভুমি ভারতের হাতছাড়া হয়ে যাবে। এমনিতেই ১৯৬২ সালের যুদ্ধে ভারত গো-হারা হেরে ৬৫ হাজার বর্গ মেইল খুইয়েছে। হাতছাড়া হয়ে গেছে কাশ্মীরের একটি অংশ পাকিস্তানের সাথে লড়াই করতে না করতেই। প্রতিবছর কারগিলের মতো ছোট খাট লড়াই চলতেই থাকে আর সংখ্যা কমতে থাকে ভারত বাহিনীর। তাই চীন ও পাকিস্তানের মোট ৪০ লাখ সেনার বিরুদ্ধে কমপক্ষে ২০ লাখ সেনার সাথে আরও ২০ লাখ রিজার্ভ ও সীমান্ত বাহিনী সর্বদাই মোতায়েন রাখতে হয়। এর মধ্যে বিমান, নৌ এবং অন্যান্য বাহিনী অন্তর্ভুক্ত। ভারতের আভ্যন্তরীণ মুক্তিকামী জাতি গোষ্ঠীর মুক্তিযোদ্ধাদের সামলাতে আরও কমপক্ষে ৫ লাখ সেনা প্রয়োজন। এখন বলুন বাংলাদেশে কত ডিভিশন সেনা অভিজান চালাতে পাঠানো সম্ভব?


হা হা হা । ভারতের ২৬ লাখ সেনা আছে। কিন্তু তারা কোনসময়ই দেশের বাইরে যুদ্ধ করতে যেতে পারবে না। কারন তারা নিজেদের দেশের ভেতরই যুদ্ধে ব্যস্ত। তাই বাংলাদেশীরা নাকে তেল দিয়ে ঘুমাতে পারেন, পৃথিবীর সবচেয়ে ভীতু সেনাবাহিনী কখনোই বাংলাদেশ আক্রমন করার ঝুঁকি নেবে না এবং তাদের সে সামর্থ্যও নাই।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: