9.02.2016

সিলেটে ইস্কন সন্ত্রাসীদের হামলায় জুম্মার মুসল্লি ও গুলিবিদ্ধ কাউন্সিলর শিরিন সহ আহত ২০ মুসলমান


শাহ জালালের হাতিয়ার গর্জে কেনো উঠেনা আর? কারন মুসলমান ভুলে গেছে নিজের স্বকীয়তা ভুলে গেছে বন্ধু কারা শত্রু কারা, সরে গেছে কোরআন সুন্নাহ থেকে কোটি মাইল দূরে নাহলে যেখানে মহান আল্লাহ পাক তিনি বলেছেনঃ নিশ্চয়ই মুসলমানদের সবচেয়ে বড় শত্রু ইহুদী, অতঃপর মুশরিক হিন্ধুরা।” (পবিত্র সূরা মায়িদা শরীফঃ পবিত্র আয়াত শরীফ ৮২) অর্থাৎ খাছভাবে ইহুদী ও মুশরিক হিন্ধুরা মুসলমানদের সবথেকে বড় শত্রু আর আমভাবে সমস্ত কাফিররাই মুসলমানদের শত্রু। তাহলে যারা মুসলমান উনাদের শত্রু তারা কি করে মুসলমান উনাদের বন্ধু হতে পারে? কস্মিনকালেও তারা বন্ধু হতে পারে না যার প্রমান আজকের সিলেটে জুম্মার মুসল্লিদের উপর মালউন ইস্কন কত্রিক হামলায় আবারো প্রমাণ করে দিলো।

২ সেপ্টেম্বর ২০১৬, শুক্রবারঃ সিলেটের সাম্প্রদায়িকতার ইতিহাসে প্রথম মসজিদ ও মন্দিরের মধ্যে সংঘর্ষ।

সিলেট নগরীর মধুশহীদে স্থানীয় মুসল্লি ও আমেরিকান হিন্দু সংগঠন ইসকন ভক্তদের মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। শুক্রবার বাদ জুমআ এই সংঘর্ষ শুরু হয়। স্থানীয় সাবেক মহিলা কাউন্সিলর শিরিন সহ গুলিবিদ্ধ হয়েছেন অন্তত ২০জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বর্তমানে পরিস্থিতি থমথমে রয়েছে। পরিস্থিতি একটু নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ-র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে প্রায় ২টার বেশি জলকামান নিয়ে প্রায় ৪৫ মিনিট গলিতে গলিতে অভিযান চালানো হয়।

এ ব্যাপারে সাবেক কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক বলেন, মধুশহীদস্থ কট্টর হিন্দুত্ববাদি সংগঠন ইসকনের ভক্তরা পবিত্র জুমুয়ার নামাজের সময় সহ বিভিন্ন সময়ে বাদ্যযন্ত্র নিয়ে সেখানে গানবাজনা করে। তাদেরকে পূর্বে এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ আযান ও নামাজের সময় গানবাজনা বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ করেছেন অনেক বার। কিন্তু তবুও তারা ইচ্ছাকৃত শুক্রবার পবিত্র জুমুআর নামাজের সময় গানবাজনা করে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের নামাজে বাধা সৃষ্টি করে। ঐ সময় স্থানীয় মুসল্লিরা তাদের গানবাজনা বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করলে ইসকন ভক্তরা তাদের জোড় খাটিয়ে মসজিদে মুসল্লিদের লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। এসময় অনেক মুসল্লিরা আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিপুল সংখ্যক পুলিশ টিআরগ্যাস ও ফাঁকা গুলি নিক্ষেপ করে।

এ বিষয়ে কথা বলতে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ রহমত উল্লাহকে ফোন দেয়া হলে তিনি রিসিভ করেননি।



বিস্তারিত আসছে…………


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: