9.21.2016

ভারতে চলছে একেরপর এক মুসলিম নির্যাতন ও গণহত্যা আর বাংলাদেশে চলছে হিন্দু তোষন কিন্তু কেনো?


গতকালকে ভারতের আসামের কাজীরাঙাতে ৩৮১টি মুসলিম পরিবারকে উচ্ছেদ করেছে পুলিশ। উচ্ছেদ অভিযানে আঞ্জুনা খাতুন (১৬) ও ফকরুদ্দিন (২৬) নামে দুইজন মুসলমান নিহত হয়েছে এবং অনেকে আহত হয়েছে। দাবি করা হচ্ছে পরিবারগুলো নাকি বাংলাদেশী মুসলিম, তাই তাদের থাকার অধিকার নেই। মজার ব্যাপার হচ্ছে, যাদেরকে বাংলাদেশী মুসলিম বলে তাড়ানো হচ্ছে তাদের বয়ঃবৃদ্ধরা ৬৫ সালের স্থানীয় ভোটার ! (http://ow.ly/v1lB304oLQL)

অন্যদিকে, বাংলাদেশে অর্পিত সম্পত্তি প্রর্ত্যাপন নামক আইন পাশ করে হিন্দুদেরকে জমি ফিরিয়ে দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার। বলা হচ্ছে ৬৫ সালের যুদ্ধের সময় যে সব হিন্দু দেশ ছেড়ে চলে গিয়েছিলো তারা এই আইন বলে পুনরায় ফেরত পাবে জমিজমা। ইতিমধ্যে এই আইনের কারণে সারা দেশে কয়েকলক্ষ মামলা দায়ের হয়েছে এবং হিন্দুরা বাংলাদেশের একটি বড় অংশ (প্রায় এক চর্তুাংশ) এলাকা নিজেদের বলে দাবি করেছে।

পাঠক, ভারতের ৬৫ সালের ভোটারদেরকেও বাংলাদেশী মুসলিম বলে উচ্ছেদ করা হচ্ছে। অন্যদিকে বাংলাদেশে শত্রু সম্পত্তি গুলোকে অর্পিত সম্পত্তি বলে হিন্দুদেরকে পুনরায় বুঝিয়ে দেয়া হচ্ছে।


ভারতে বিজেপি ক্ষমতায়, সেখানে হিন্দুত্ববাদ জারি করার চেষ্টা চলছে। দেশটির সংবিধান অসাম্প্রদায়িক, কিন্তু সেখানেই মুসলিম শূণ্য করে রামরাজত্ব প্রতিষ্ঠার অঙ্গিকার নিয়েছে মোদি সরকার। কিন্তু আশ্চর্যজনক হচ্ছে বাংলাদেশ সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানদের দেশ, এই দেশও যেই আচরণ করছে তাতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে বাংলাদেশেও বর্তমানে ভারতীয় হিন্দুত্ববাদী নীতি অনুসারে পরিচালিত হচ্ছে। আমরা কি তবে ধরে নেবো, বাংলাদেশ অঘোষিত ভারতীয় অঙ্গরাজ্য বলে অন্তর্ভূক্ত হয়েছে ? অন্তত বাংলাদেশের বিভিন্ন আচার-আচরণ তো সে ইঙ্গিতই দিচ্ছে।

1


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: