9.22.2016

এবার দেবতার সম্পত্তির নামে সুনামগঞ্জে ১৮ টি মুসলিম পরিবারকে উচ্ছেদ করলো হিন্দু চেয়ারম্যান


হে বাংলার ঘুমন্ত মুসলমান এই খবর ভারতের নয়, এইটা ৯৫ভাগ মুসলিমের খোদ বাংলাদেশের সুনামগঞ্জের। গতকালকে সুনামগঞ্জে কথিত অর্পিত সম্পত্তি আইনের নাম দিয়ে প্রায় সোয়া একর জমি থেকে ২৩ ঘর মানুষকে (১৮ ঘর মুসলিম, ৫ ঘর হিন্দু) উচ্ছেদ করলো স্থানীয় পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান চিত্তরঞ্জন রায় চৌধুরী।

আমি অনেক আগে থেকেই আপনাদেরকে অর্পিত সম্পত্তি ও দেবোত্তর সম্পত্তি সম্পর্কে সচেতন করেছিলাম। অর্পিত ও দেবোত্তোর সম্পত্তির নামে বাংলাদেশের হিন্দুরা যা পাচ্ছে তা পৃথিবীর কোন দেশে করে না। যুদ্ধ শেষ হয়ে গেলে ঐ সম্পত্তি আর কেউ ফেরত দেয় না। আর এই জমিগুলো তো মুসলমানদেরই। ১৭৯৩ সালে ব্রিটিশরা চিরস্থায়ী বন্দোবস্তের মাধ্যমে মুসলমানদের জমি কেড়ে নিয়ে হিন্দুদের হাতে তুলে দেয়।

অথচ সবাইকে অবাক করে দিয়ে আওয়ামী সরকার এই দেশবিক্রির আইন পাশ করে। এই আইনের আওতায় ইতিমধ্যে দেশে লক্ষ লক্ষ মামলা করেছে হিন্দুরা। সিলেট, সুনামগঞ্জসহ অনেক এলাকায় মামলার রায় বাস্তবায়ন করা শুরু হয়েছে। বর্তমান সরকার অত্যাধিক হিন্দুদের দিকে ঝুকে যাওয়ায়, প্রশাসনে হিন্দুরা একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার করায় এবং প্রধানবিচারপতি হিন্দু হওয়ায় হিন্দুরা সর্বত্র ত্রাস চালিয়ে প্রশাসনীকভাবে জমি দখল শুরু করেছে।

মনে রাখবেন- দেবোত্তর ও অর্পিত সম্পত্তি আইনের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশের প্রায় এক-চতুর্থাংশ এলাকা নিয়ে যাবে হিন্দুরা এবং গৃহহীন হবে প্রায় ৩ কোটি মুসলমান, বাংলাদেশের মুসলমানদের একবারে পথে বসিয়ে দেয়া হবে।


খবরের সূত্র http://bit.ly/2cwcmNQ


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: