9.08.2016

হিন্দুদের খুশি করতে ১৮ বছরের নিচে কোরবানি করা যাবেনা প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে হলুদ মিডিয়া


হে মুসলিম ভাই ও বোনেরা লক্ষ্য করুন এই লিখাটা (http://bbc.in/2crQYsf) পড়েন, দেখুন ইহুদীবাদী বিবিসি কিভাবে পবিত্র দ্বিন ইসলাম উনার বিরুদ্বে বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে, আর তার এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছে সরকার অথচ সরকারের জানা উচিত দেশে ৯৫ ভাগ মুসলিম আর ৩-৪ ভাগ হিন্দু এবং ইহুদিদের দালাল রা বসবাস করে যারা তাদের কখনো ক্ষমতায় রাখতে পারবেনা যদি সারা বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলিম সরকারের বিপক্ষে চলে যায়

নিচে খুবই কিছু গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট আপনাদের সম্মুখে তুলে ধরলামঃ-

১) সরকার ১৮ বছরের নিচে কাউকে জবাই করতে নিষেধ করেছে। আমি নিজে ২৪ ঘণ্টাই ইসলাম নিয়ে রিসার্চ করছি এবং আমার সাথে অসংখ্য অগনীত মুফতি মুহাদ্দিস উনাদের সম্পর্ক আছে আমি উনাদের সাথেও আলাপ করেছি, আমাদের পবিত্র দ্বিন ইসলামে পশু জবাই নিয়ে কোনো বয়স ভিত্তিক বিধিনিষেধ নেই। যার কারনে সবাই বলেছে- সরকার এন্টি ইসলামমিস্টদের এজেন্ডা বাস্তবায়নে একটি নির্দেশনা দিয়েছে। তাই আমার মতে মুসলমানরা না মানলেই হলো। বরং কোলের বাচ্চাদের কোলে করে নিয়ে প্রত্যেক টা কোরবানি তাদের সম্মুখে করা যেনো করবানি নিয়ে তাদের কোনো জড়তা না থাকে।

২) বিবিসি নিউজ করেছে এক কওমী মাদ্রাসা ছাত্র বলেছে ১৪-১৫ বছর বয়সে তার নাকি কোরবানী করতে খারাপ লেগেছে।আরেক ছাত্র বলেছে- ১৮ বছরের আগে নাকি তার জবাই করার সাহস ছিলো না। এগুলো ভ্রান্ত ফাউল নিউজ। কওমী মাদ্রাসার ছাত্রদের এ ধরনের বিভ্রান্তিকর নিউজের প্রতিবাদ করা উচিত।

৩) গণ্ডমূর্খ মানসিক রোগী মোহিত কামাল- ডাইরেক্ট বলেছে জবাইয়ের দৃশ্য দেখলে নাকি ১৮ বছরের নিচে হলে ভয় পায়। তারা নাকি মানসিক রোগী মোহিত কামালের থেকে চিকিৎসা নিতে যায়। এছাড়া ডাইরেক্ট না বলেলেও যে এই দৃশ্য থেকে জঙ্গীবাদের উদ্ভব হতে পারে, এমন ইঙ্গিতও ঘুরিয়ে দিয়েছে।

৪) এক সরকারী কর্মকর্তা বলেছে- ১৮ বছরের নিচে জবাই করলে মানসিক ও শারীরিক আঘাত প্রাপ্ত হতে পারে ।


বিবিসিকে বর্জন করা সময়ের দাবি এবং ঈমানদার মুসলমানদের উপর ওয়াজিব। রাস্তায় ঘাটে এইসব হলুদ মিডিয়ার কোনো সাংবাদিক দেখলে গনপিটুনি দিন। আর সরকারের কোনো আমলার পক্ষ থেকে এ ধরনের ইহুদীবাদী আইন দেখলে লাথির উপরে রাখুন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: