10.01.2016

আপনি কি জানেন হিন্দুরা কেনো মুসলমানদের কে পূজা করাতে চায়?


গত কয়েকদিন ধরে হিন্দু মহাজোট নামক একটি সংগঠন প্রেসক্লাবে সমাবেশ করছে, তাদের দাবি- দূর্গাপূজা উপলক্ষে ৩ দিন সরকারি ছুটি দিতে হবে। যে হিন্দুরা এ ধরনের দাবি তুলেছে তাদের উদ্দেশ্য নিয়ে আসলে ধোয়াশা আছে। বাংলাদেশে হিন্দুদের ৩ দিনের ছুটি দিতে হবে এটা একটা উদ্ভট দাবি, কারণ বাংলাদেশের জনসংখ্যার মাত্র ২-৩ শতাংশ হচ্ছে হিন্দু জনগোষ্ঠী। এই ২-৩% হিন্দুর জন্য যদি ৩ দিন সাধারণ ছুটি দেয়া হয়, তবে ঐ ৩ দিন সংখ্যাগুরু মুসলমানরা কি করবে, পূজা করবে ??

বলাবাহুল্য, হিন্দুরা দূর্গা পূজা উপলক্ষে নবমীতে ঐচ্ছিক ছুটি পায় এবং দশমীতে সাধারণ ছুটি পায়। এক্ষেত্রে বলা যায়, বাংলাদেশে হিন্দুদের দূর্গা পূজা উপলক্ষে ছুটি ২ দিন পায়। কিন্তু ২ দিনের ছুটিকে ১ দিন বাড়িয়ে ৩ দিনের জন্য আন্দোলন করা কি উস্কানিমূলক নয়??

আর ৩ দিনের ছুটি দাবি কোন তুললো তারা? পার্শবর্তী হিন্দুত্ববাদি দেশ ভারতে যেখানে হিন্দুত্ববাদী সরকার ক্ষমতায়, সেখানেও তো দূর্গা পূজা উপলক্ষে সাধারণ ছুটি ১ দিন, তাহলে বাংলাদেশে এরা ৩ দিন ছুটি চায় কোন সাহসে??

আসলে হিন্দুরা চায় মুসলমানরা তাদের ধর্ম ত্যাগ করে হিন্দুদের সাথে মূর্তি পূজায় অংশগ্রহণ করুক কুফুরি শিরিক করে তাদের মতো মুশরিক হয়েযাক। আমার মনে হয়, হিন্দুরা নিজেদের ধর্ম পালনে যতটুকু না সচেতন তার থেকে বেশি আগ্রহী মুসলমানদের ধর্মনাশ করার ব্যাপারে। কারণ মুসলমানদের ধর্মের সাথে হিন্দু ধর্মের মূল তফাৎই হচ্ছে মূর্তি পূজা করা। সেক্ষেত্রে যদি দেশে পূজা উপলক্ষে অধিক ছুটি পাওয়া যায়, তবে ইচ্ছা-অনিচ্ছায় অনেক মুসলমানদের সেই পূজায় মাখামাখি করানো যাবে।

আমরা ঈদের দিন প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের স্ট্যাটাস দেখেছিলাম। তিনি আমেরিকা থেকে বলেছিলেন- ঈদের দিন তার মেয়ের স্কুল খোলা। তারমানে আমেরিকার মত কথিত শীর্ষ গণতন্ত্রপন্থী রাষ্ট্রও সংখ্যালঘুদের ঈদ উপলক্ষে ছুটি দেয় না। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ তো অনেক উদার। বাংলাদেশে হিন্দুদের দূর্গা পূজা উপলক্ষে ২ দিন ছুটি তো দেয়া হচ্ছে, উপরন্তু সারা বছরে সাধারণ ও ঐচ্ছিক মিলিয়ে ১০ দিন ধর্মীয় দিবস উপলক্ষে ছুটি দেয়া হচ্ছে হিন্দুদের, যা পৃথিবীর আর কোন দেশে দেয়া হয় না।


মগের মুল্লুক বলে একটা কথা আছে। বাংলাদেশে হিন্দুরা যা চাইছে তা হচ্ছে মগের মুল্লুক ই। দেশের জনসংখ্যায় তাদের অবস্থান পুটি মাছ সদৃশ্য, কিন্তু খেতে চাইছে তিমি মাছের মতন। আসলে আওয়ামী হিন্দু লীগের আমলেই এসব দাবি তোলা সম্ভব, অন্য সময় হলে এত সাহস তাদের হতো বলে মনে হয় না। হাজার হোক আওয়ামীলীগ অতিরিক্ত হিন্দু ধর্মের প্রতি ঝুকে গেছেন, এই কারণেই হিন্দুদের এত সাহস।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: