11.07.2016

হে বাংলার মুসলমান আপনারা এখনি ঠিক করে নিন আগামীতে কোনটি চান? স্বাধীনতা নাকি পরাধীনতা?

সাম্রাজ্যবাদীদের টার্গেট থাকে সব সময় মুসলমান দেশে ঢোকার। কিছুদিন আগ পর্যন্ত তারা এই ঢোকার জন্য ব্যবহার করতো নাস্তিক বা ধর্মবিদ্বেষীদের। কিন্তু বাংলাদেশের মুসলমানরা আবার ঘোর নাস্তিক বিরোধী। তাই নাস্তিকরা বাংলাদেশে একটা হেভি মার খেলো। দূরে চলে গেলো নাস্তিক প্রজেক্ট। সাম্রাজ্যবাদীদের নাস্তিক প্রজেক্ট মার খাওয়ার প্রধান কারণ বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানদের মনের জোর যার মধ্যে রয়েছে নাস্তিক বা ধর্মবিদ্বেষীদের প্রতি তীব্র ঘৃণা।

কিন্তু এই ঘটনার পর গুটি চেঞ্জ করা হলো। নাস্তিকদের বাদ দিয়ে এবার সাম্রাজ্যবাদীরা ব্যবহার করলো সংখ্যালঘুবা হিন্দুনামক গুটিকে। এবার তারা তাদের চালে পুরাই সফল, ১০০% সফল। কারণ বাংলাদেশের মানুষ নাস্তিক বিরোধী হলেও, মারাত্মক ধরনের হিন্দুপ্রেমী। তাই হিন্দু দ্বারা মুসলমানদের ঘায়েল করা অনেক সোজা। এবং পাল্টা প্রতিরোধ আসার সম্ভবনা ০% এর চেয়েও কম। হিন্দুরা মুসলমানদের জানের চেয়েও প্রিয়। মুসলমান নিজের ক্ষতি করে, কিন্তু হিন্দুদের প্রতি ভালোবাসা তাদের শতভাগ।

সাম্রাজ্যবাদীদের সংখ্যালঘু জাতি হিসেবে ব্যবহার করে দেশ দখলের রীতি নতুন কিছু নয়। সংখ্যালঘু জাতিকে ব্যবহার করে দক্ষিণ সুদান আলাদা করা, সংখ্যালঘু জাতিকে ব্যবহার করে পূর্ব তীমুর আলাদা করা এগুলো মাত্র কিছুদিন আগের কৌশল। ভারতবর্ষে এই কৌশলের ব্যবহার আরো পুরোনো। ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি যখন ভারতবর্ষে আসে, তখন তারা দেখে এ অঞ্চলের মুসলমানরা শিক্ষা-দীক্ষা, জ্ঞানে-গুনে, ক্ষমতা-সম্পদে অনেক প্রাচুর্য্যময়, তাই এত দূর থেকে এসে কিছুই করা যাবে না। ফলে ব্রিটিশরা অস্ত্র বেছে নেয় এ অঞ্চলের হিন্দুদের। হিন্দুদের হাতে ক্ষমতা দিয়ে দাঁড় করিয়ে দেয় মুসলমানদের বিরুদ্ধে। আবার এই কৌশলে মার খায় মুসলমানরা। কারণ তাদের মনের ভেতরে রয়েছে মারাত্মক হিন্দুপ্রীতি, ব্যস সেই হিন্দুপ্রীতির সুযোগে কেড়ে নেয়া হয় মুসলমানদের ক্ষমতা, ব্রিটিশরা সম্পন্ন করে ২০০ বছরের ক্ষমতা।

আপনি যদি বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ভিত্তি কি? আমি বলবো হিন্দু বিদ্বেষ। বিশ্বাস হচ্ছে না? ইতিহাস ঘেটে দেখুন, পূর্ব পাকিস্তান যদি সৃষ্টি না হতো, তবে বাংলাদেশে এখন হতো ভারতের একটি অঙ্গরাজ্য। আর মুসলমানদের জন্য পৃথক ভূমি মানে পাকিস্তানের স্বপ্নদ্রষ্টা ছিলে বাঙালী মুসলমানরাই। ২০০ বছর হিন্দুদের ষড়যন্ত্র দেখে এই বাংলাদেশের মুসলমানরাই প্রথমে বলেছিলো- আমাদের হিন্দুদের সাথে একত্রে থাকা সম্ভব নয়, আমাদের পৃথক ভূমি চাই।সেখান থেকেই সূচনা হয় আজকের বাংলাদেশের। অপরদিকে হিন্দু-মুসলিম ভাই ভাইবলে অনেক মুসলিম আশ্রয় নিয়েছিলো ভারতে, যারা আজকে ভারতের চতুর্থশ্রেণীর নাগরিক।

ইতিহাসে কোনো কিছু্ই লুকানো নেই, সব প্রকাশ্য। হিন্দুবিরোধীতাই মুসলমানদের দিয়েছিলো স্বাধীনতা, আর হিন্দুপ্রীতি দিয়েছিলো পরাধীনতা। এখন আপনি ঠিক করে নিন, আগামীতে কোনটি আপনি চান- স্বাধীনতা নাকি পরাধীনতা।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: