3.02.2017

ইসলাম বিদ্বেষী হাসান মাহমুদেরা মূর্তির প্রতি ভালোবাসা ত্যাগই করতে পারছে না

ইসলাম বিদ্বেষীরা মূর্তির প্রতি ভালোবাসা ত্যাগই করতে পারছেনা তাই তারা এবার মূর্তি যে সম্মানিত পবিত্র দ্বীন ইসলামে নিষিদ্ধ এ ব্যাপারে পবিত্র কুরআন শরীফ থেকে দলীল চাইলোযদিও এদের দলীল দেয়া মানে দলীল ও মুল্যবান সময়ের অপচয়কারন এদের পূর্বপুরুষ চন্দ্র দ্বিখন্ডীত হওয়ার মতো ব্যপার স্বচক্ষে দেখেও মানে নাইতারপরেও সাধারণ মানুষজন যাতে বিভ্রান্ত না হয় তার জন্য দলীল দেয়া হচ্ছে

তাদের ধারনা পবিত্র কুরআন শরীফে মূর্তির বিপক্ষে কিছুই নাইতো আসুন দেখা যাক মহান আল্লাহ পাক তিনি কি বলেছেন

কুরআন শরীফে ইরশাদ মুবারক হয়েছেঃ [يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا إِنَّمَا الْخَمْرُ وَالْمَيْسِرُ وَالْأَنصَابُ وَالْأَزْلَامُ رِجْسٌ مِّنْ عَمَلِ الشَّيْطَانِ فَاجْتَنِبُوهُ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ]
অর্থঃ হে মুমিনগণ, এই যে মদ, জুয়া, মূর্তি এবং ভাগ্য-নির্ধারক শরসমূহ এসব শয়তানের অপবিত্র কার্য ব্যতিত কিছুই নয়অতএব, এগুলো থেকে বেঁচে থাকো-যাতে তোমরা কল্যাণপ্রাপ্ত হও। (সূরা মায়িদা শরীফঃ আয়াত শরীফ ৯০)

এই আয়াত শরীফে আনছাবশব্দের অর্থ বাংলায় মূর্তি বলা হয়েছেসূতরাং দেখা গেলো মূর্তি হচ্ছে শয়তানের অপবিত্রতা বা হারাম কাজআর মুসলামান মাত্রই শয়তানের অপবিত্রতা থেকে বিরত থাকতে হবেসূতরাং দেখা গেলো মূর্তি সরাসরি মহান আল্লাহ পাক উনার ফয়সালা অনুযায়ী হারাম কেউ দ্বিমত করলেই মুরতাদ হবে।

মহান আল্লাহ পাক তিনি আরো বলেনঃ [ذَٰلِكَ وَمَن يُعَظِّمْ حُرُمَاتِ اللَّـهِ فَهُوَ خَيْرٌ لَّهُ عِندَ رَبِّهِ ۗ وَأُحِلَّتْ لَكُمُ الْأَنْعَامُ إِلَّا مَا يُتْلَىٰ عَلَيْكُمْ ۖ فَاجْتَنِبُوا الرِّجْسَ مِنَ الْأَوْثَانِ وَاجْتَنِبُوا قَوْلَ الزُّورِ]
অর্থঃ এটা শ্রবণযোগ্যআর কেউ মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানযোগ্য বিধানাবলীর প্রতি সম্মান প্রদর্শন করলে তার পালনকর্তার নিকট তা তার জন্যে উত্তম বলে গন্য হবেউল্লেখিত ব্যতিক্রমগুলো ছাড়া তোমাদের জন্যে চতুস্পদ জন্তু হালাল করা হয়েছেসুতরাং তোমরা মূর্তিদের অপবিত্রতা থেকে বেঁচে থাকো এবং মিথ্যা কথাবার্তা থেকে দূরে সরে থাক। (সূরা হজ্জ শরীফঃ আয়াত শরীফ ৩০)

মহান আল্লাহ পাক তিনি এই আয়াত শরীফে সরাসরি মূর্তি নামক অপবিত্র হারাম জিনিস থেকে বিরত থাকতে বলেছেন কেউ দ্বিমত করলেই মুরতাদ হবে।

নাস্তিক ইসলাম বিকৃতকারী হাসান মাহমূদ ও তার গ্রুপ বলেছে, মুহম্মদ বিন কাসিম রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি সিন্ধু বিজয় করে কি মুশরিকদের মূর্তি ভেঙ্গেছেন? তো আসুন আপনাদের মজার একটা জিনিস দেখাইমুহম্মদ বিন কাসিম রহমতুল্লাহি আলাইহি তো বটেই বরং খোদ কুরআন শরীফে মূর্তি ভাঙ্গার কথা বলা হয়েছে

হযরত ইব্রাহিম আলাইহিস সালাম তিনি যেসব মূর্তি গুলো নিজ হাতে ভাঙ্গলেন তার দলীল কুরআন শরীফ থেকে দেখেনঃ [فَرَاغَ إِلَىٰ آلِهَتِهِمْ فَقَالَ أَلَا تَأْكُلُونَ ﴿٩١﴾ مَا لَكُمْ لَا تَنطِقُونَ ﴿٩٢﴾ فَرَاغَ عَلَيْهِمْ ضَرْبًا بِالْيَمِينِ ﴿٩٣﴾ فَأَقْبَلُوا إِلَيْهِ يَزِفُّونَ ﴿٩٤﴾ قَالَ أَتَعْبُدُونَ مَا تَنْحِتُونَ ﴿٩٥﴾ وَاللَّـهُ خَلَقَكُمْ وَمَا تَعْمَلُونَ]
অর্থঃ অতঃপর তিনি (হযরত ইব্রাহিম আলাইহিস সালাম) তাদের দেবালয়ে, গিয়ে ঢুকলেন এবং বললেনঃ তোমরা খাচ্ছ না কেন? তোমাদের কি হল যে, কথা বলছ না? অতঃপর তিনি প্রবল আঘাতে তাদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়লেনতখন লোকজন উনার দিকে ছুটে এলো ভীত-সন্ত্রস্ত পদেতিনি বললেন, তোমরা স্বহস্ত নির্মিত পাথরের পূজা কর কেন? অথচ মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদেরকে এবং তোমরা যা নির্মাণ করছো সবাইকে সৃষ্টি করেছেন। (সূরা ছফফাত শরীফঃ আয়াত শরীফ ৯১-৯৫)


সূতরাং উপরোক্ত আয়াত শরীফ সমূহ থেকে প্রমাণ হলো মূর্তি ভাষ্কর্য হারাম ও গুনাহের কাজ হাসান মাহমুদের মতো মুক্তমনা আজীবন মূর্তির পক্ষে কথা বললেও তা পবিত্র দ্বীন ইসলামে যায়েজ হবেনা আর কোন মুসলমান পক্ষে বললেই মুরতাদ হয়ে কাফের হয়ে যাবে।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: