6.25.2017

ইহুদী বিশেষ-অজ্ঞ সুষুপ্ত পাঁঠার মুসলমানদের ঈদ নিয়ে তার মিথ্যাচারের জবাব

অনলাইনের নাস্তিক উগ্র হিন্দুদের ইহুদীপ্রীতি আসলেই হাস্যকর। ইহুদীদের নিয়ে প্রশংসায় মুখে ফেনা তুললেও ইহুদী ধর্ম সম্পর্কে তাদের জ্ঞান যে শূন্যের কোঠায়, সেটা অনলাইন উগ্র হিন্দু সুষুপ্ত পাঁঠার পবিত্র ঈদ নিয়ে লেখা পোস্টটি পড়লেই বোঝা যায়। সুষুপ্ত হিন্দু পাঁঠাটা দাবি করেছে, সম্মানিত মুসলমানদের পবিত্র ঈদনাকি এসেছে ইহুদীদের ইয়ম কিপ্পুরথেকে! (https://goo.gl/sgzg4L)

পাঁঠা এই পোস্ট দেয়ার আগে উইকিপিডিয়ায় Yom Kippur আর্টিকেলটা পড়ে নিলেও পারত। সেখানে প্রথমেই বলা হয়েছে যে, ইয়ম কিপ্পুরের দিনে ইহুদীরা ২৫ ঘণ্টাব্যাপী উপবাস করে। সারাদিন সিনাগগে প্রার্থনা করে। অথচ সম্মানিত মুসলমানদের পবিত্র ঈদের দিনে যেখানে পবিত্র রোযা রাখাটাই হারাম, সেখানে সুষুপ্ত পাঁঠা দাবি করেছে যে ইহুদীদের ২৫ ঘণ্টাব্যাপী উপবাসের দিন থেকে নাকি সম্মানিত মুসলমানদের পবিত্র ঈদের দিন এসেছে! বদ্ধ উন্মাদ ছাড়া কেউ এরকম কথা বলতে পারে না।

উইকির আর্টিকেলটিতে ইয়ম কিপ্পুরের দিনে ইসরাইলের একটি প্রধান মহাসড়ক Ayalon Highway’ ছবি দেয়া হয়েছে, যেখানে কোন গাড়িঘোড়া বা মানুষের চিহ্নও নেই। অর্থাৎ সেইদিন পুরো ইসরাইলই পরিণত হয় জনমানবহীন ভূতের দেশে। (https://goo.gl/EesXut) বিপরীতে সম্মানিত মুসলমানদের দেশগুলোতে পবিত্র ঈদের দিনে রাস্তাঘাট নবসাজে সজ্জিত হয়, সম্মানিত মুসলমানদের বাইরে বের হয়ে খুশি প্রকাশ করতে দেখা যায়।

সুষুপ্ত পাঁঠা আরো দাবি করেছে, পবিত্র দ্বীন ইসলাম আগমনের আগে নাকি মদীনা শরীফ বাসীরা ইহুদীদের সাথে মিলে ইহুদীধর্মীয় উৎসব পালন করত। অথচ সম্মানিত মুসলমানদের পবিত্র ঈদউৎসব আসার পর নাকি মদীনা শরীফ বাসীরা ইহুদীদের দিবসগুলো পালন বন্ধ করে দেয়। তাই পবিত্র ঈদএকটি সাম্প্রদায়িক উৎসব, এমনটিই দাবি এই সুষুপ্ত পাঁঠার।

এই কাল্পনিক ইতিহাসের স্বপক্ষে সুষুপ্ত পাঁঠা কোন দলিল দিতে পারেনি। বরং বাস্তব ইতিহাস হলো, পবিত্র দ্বীন ইসলাম আগমনের আগে মদীনা শরীফের মূল বাসিন্দারা ছিলেন সুদখোর ইহুদীদের দ্বারা নিষ্পেষিত। সুদের ফাঁদে ফেলে মদীনা শরীফ বাসীদের ফসলি জমি, বাগান পশুপাল দখল করে নিত ইহুদীরা, যে কারণে মদীনা শরীফ বাসীরা কখনোই ইহুদীদের পছন্দ করতেন না। সুতরাং ইহুদীদের সাথে মিলে মদীনা শরীফ বাসীগণ ইহুদীদের উৎসব পালন করতেন, এটাও পাগলের প্রলাপ ছাড়া কিছু নয়। শুধু মদীনা শরীফেই নয়, ইউরোপের ইতিহাসেও দেখা যায় যে, এই ইহুদীরা সুদের ফাঁদে ফেলে খ্রিস্টানদের ধনসম্পদ কেড়ে নিত। শেক্সপিয়ারের মার্চেন্ট অফ ভেনিসনাটকের শাইলক চরিত্রটিই তার প্রমাণ।

সুষুপ্ত পাঁঠাদের মতো ইসরাইলী খদ্দেরের অবৈধ সন্তানদের ইহুদীপ্রীতি নিয়ে বেশি কিছু বলার নেই। তার অন্য পোস্টগুলোতেও সে ইহুদী ধর্মের প্রশংসা করতে গিয়ে আরো অনেক হাস্যকর আজগুবি কাল্পনিক কথা আর ভুল করেছে, সেগুলো নিয়ে নাহয় পরে পোস্ট দিব। আপাতত এই রাত দোয়া কবুলের রাত, তাই আসুন সবাই মিলে দোয়া করি, যেনো মহান আল্লাহ পাক আমাদের গুনাহসমূহ মাফ করে দেন। আরো দোয়া করি, যেনো এই নাস্তিক ইসলামবিদ্বেষীরা সমূলে ধ্বংস হয়ে যায়। কুকুর শৃগালের মতো যেন এসব উগ্র হিন্দুদের মৃত্যু হয়।


হাদীস শরীফে নিশ্চয়ই পাঁচ রাত্রিতে দোয়া নিশ্চিতভাবে কবুল হয়ে থাকে। ১. রজব মাসের প্রথম রাত। ২. শবে বরাতের রাতে ৩. শবে ক্বদরের রাতে ৪. ঈদুল ফিতরের রাতে ৫. ঈদুল আযহার রাতে। আজ হচ্ছে সেই ঈদুল ফিতরের রাত, যেই রাতে নিশ্চিতভাবে দুআ কবুল হয়।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: