7.11.2017

রাস্তা উন্নয়নের নামে রাজধানী জুড়ে পবিত্র মসজিদ ভাংলেও ভাঙেনি গির্জা মন্দির

রাস্তা উন্নয়নের নামে রাজধানী জুড়ে পবিত্র মসজিদ ভাঙ্গার মহোৎসবঃ রাস্তা উন্নয়নের নামে রাজধানী ঢাকায় পবিত্র মসজিদ ভাঙ্গার মহোৎসব চলছে। আওয়ামী সরকারের আমলে রাস্তার উন্নয়নে নামে ওয়াকফকৃত বহু মসজিদের যায়গা দখল করা হয়। সরকারের পক্ষ থেকে নতুন মসজিদ নির্মাণ বা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা বলা হলেও কয়েক বছর অতিবাহিত হলেও সেই ওয়াদা পূরণ করা হয়নি। সম্প্রতি এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে এ তথ্য বের হয়ে আসে।

জানা গেছে, গত কয়েক বছর আগে রাজধানীর আগারগাও এলাকায় কামাল সরণী রাস্তার উন্নয়নের নামে ৫টি মসজিদ ও একটি মাদ্রাসা ভেঙ্গে ফেলে সরকার। এগুলো হলোঃ-

১) মিজান জামে মসজিদ (পশ্চিম আগারগাও): মসজিদের মোট জমি ছিলো ৪ কাঠা। আড়াই কাঠা রাস্তা নিয়ে গেছে. বর্তমানে আছে দেড় কাঠা। মসজিদ কমিটি জানায়, রাস্তার যায়গা রেখেই মসজিদ করা হয়েছিলো। রাস্তা যাওয়ার কথা ছিলো পাশের একটি বাড়ি ভেঙ্গে। কিন্তু বাড়ি না ভেঙ্গে মসজিদ ভেঙ্গে রাস্তার যায়গা বের করা হয়।

২) কেন্দ্রী বায়তুল মামুন জামে মসজিদ (মধ্য পীরের বাগ): মসজিদটি ১৯৫০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ওয়াকফ করা হয় ১৯৬০ সালে। মসজিদের মোট যায়গা ছিলো ১৩ শতাংশ, ৫ শতাংশ রাস্তায় নিয়ে এখন ৮ শতাংশ আছে। জানা যায়, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতারা মসজিদ ভাঙ্গতে সহায়তা করে।

৩) মসজিদ-এ বায়তুল আমান (৩৪ উত্তর পীরের বাগ)

৪) বায়তুল মামুর জামে মসজিদ (পশ্চিম মনিপুর, মিরপুর): অধিকাংশ যায়গা নিয়ে গেছে। সামান্য কিছু ক্ষতিপুরণ দিয়েছে, পুরোটা দেয় নাই।

৫) হয়রত আবু বকর সিদ্দিক এতিমখানা ও মাদ্রাসা: ৫.৫ শতাংশ যায়গা ছিলো। ২.৯ শতাংশ নিয়ে গেছে। ১ কোটি ১৪ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবার কথা। দিয়েছে মাত্র ১২ লক্ষ টাকা।

৬) মসজিদুন নূর জামে মসজিদ (কচুক্ষেত, পুরাতন বাজার): মসজিদ ভেঙ্গে প্রায় ৩ শতক যায়গা রাস্তা নিয়ে গেছে।

এদিকে ৫টি মসজিদ ও ১টি মাদ্রাসা ভাঙ্গতে পারলেও ভাঙ্গতে পারেনি ১টি গির্জা। মিরপুর-২ এর ২২/১৯ বড়বাগ ঠিকানার নাজারেথ নভিসিয়েট ও এসএল লুইজেন সিস্টারস নামক একটি গির্জাকে ভাঙ্গতে না পারায় কামাল সরনী রাস্তাটি সরাসরি শিশু হাসপাতালের রাস্তার সাথে সংযুক্ত হতে পারেনি, ৩ রাস্তার মোড় করে সংযুক্ত হয়েছে (ডানদিকের ছবি দ্রষ্টব্য)।

উল্লেখ্য সারা দেশে নানান ছুতোয় মসজিদ ভাঙ্গার কার্যক্রম চালাচ্ছে সরকার। আপনাদের কাছে আরো এমন তথ্য থাকলে কমেন্টে জানাতে পারেন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: