10.12.2017

এবার মোসাদের কাছে বিক্রি হতে যাচ্ছে বিএনপি! তাদের হিন্দু নেতাদের দ্বারা

দেশের মানুষ যাকে ভারত ও ইসরাইল বিরোধী একটি প্লাটফর্ম মনে করতো ক্ষমতার লোভে সেই বিএনপি মোসাদ এজেণ্ট নবগঠিত হিন্দু মৌলবাদী দলের সাথে আঁতাত করেছে। গতো ৭ তারিখে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির এক নেতা এ ঘোষণা দিলতবে বিএনপির জানা হোক আর অজানা হোক বিএনপিতে মোসাদের এজেণ্ট ঢুকে গেছে অনেক আগে যেমন ২০১৬ সালের মে মাসে আমি একটি পোষ্ট করি যা ছিলোঃ ভারতে গিয়ে ইসরায়েলের মেন্দি এন সাফাদির সাথে বৈঠক বিএনপির যুগ্ম মহাসচিবের। এবং মোসাদ এজেন্ট বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর ব্যপারে কি সরকার কোনো পদক্ষেপ নেবেনা?

সুতরাং ইসলামপন্থীরা বিএনপি থেকে সাবধান! আর পাশে কিন্তু খেলাফত আন্দোলনের সেই নেতা মোসাদ এজেন্ট কাজী আজিজুল হক যাকে নিয়ে ২০১৬ সালের জুলাই মাসে লিখেছিলামঃ মোসাদ এজেন্ট কাজী আজিজুল হক থেকে সাবধান থাকুন দেশপ্রেমিক মুসলমানরা

উল্লেখ্য বাংলাদেশ জনতা পার্টিকে (বিজেপি) সমর্থন দেওয়ার কথা জানিয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য রমেশ দত্তগতো ৭ তারিখ শনিবার বিকালে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে বিজেপি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমরা আপনাদের পাশে আছি, বিএনপি আপনাদের পাশে থাকবে
তবে বিএনপির নীতি-নির্ধারকরা বলছেন, এ ধরনের কোনও আলোচনার কথাই তাদের জানা নেইবিজেপি নামে একটি দল হয়েছে জানলেও সংগঠনটির সঙ্গে কোনও আলোচনা হয়নিযদিও রমেশ দত্ত জানান, বিএনপির বর্তমান সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর অনুমতি নিয়েই তিনি অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিতে গিয়েছিলেন

শনিবার বিকালে ডিআরইউ মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে বিজেপিপ্রধান বিচারপতি এসকে সিনহাকে জোরপূ্র্বক একমাসের ছুটিতে যেতে বাধ্য করার প্রতিবাদে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে সংগঠনটিগত ২২ সেপ্টেম্বর বিজেপির সভাপতি মিঠুন চৌধুরী বলেছিলেন, ‘বিজেপির প্রতি ভারতের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) আশীর্বাদ আছে

সংবাদ সম্মেলনে আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক মিঠুন চৌধুরীর লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘আজ বাংলাদেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায় চরম উৎকণ্ঠার মধ্যে আছেএ সরকারের আমলে তারা চরম লাঞ্ছিত, প্রবঞ্চিত ও নির্যাতিততবু আশার স্থল ছিলেন প্রধান বিচারপতিকিন্তু তাকেও জোরপূর্বক অসুস্থতার অজুহাত দেখিয়ে ছুটিতে পাঠাবে সরকার, এটা আমরা কল্পনাও করতে পারিনিআমরা সরকারের এমন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাই

মিঠুন চৌধুরীর লিখিত বক্তব্যের পর বিএনপি নেতা রমেশ দত্ত বলেন, ‘আমরা বিজেপির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করছিআপনারা যে বিষয় নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করছেন, এটিকে আমরা সমর্থন করছিতিনি আরও বলেন, ‘দেশে শুধু হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টানই নয়, সবাই সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলছেসর্বশেষ প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে একটি খেলা হয়ে গেলো, আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাইতিনি ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দেলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান

কয়েক মিনিটের বক্তব্যের শেষদিকে রমেশ দত্ত বলেন, ‘আমরা আপনাদের পাশে আছি, বিএনপি আপনাদের পাশে থাকবেআপনারা এগিয়ে যান, আপনারা কথা বলুনসমস্ত ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে খালেদা জিয়া আপনাদের পাশে আছেন

বিজেপিকে সমর্থন দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে রমেশ দত্ত বলেন, ‘আমার সঙ্গে আন অফিসিয়ালি কথা হয়েছেঅফিসিয়ালি নাভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেই এসেছিআমরা চাই, হিন্দুরা একটু কথা বলুক

ভাই কে? তারেক রহমানের সঙ্গে কথা হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে রমেশ দত্ত জানান, ‘আমি রিজভী ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলছিআমরা বলতে চাই, হিন্দুরাও কথা বলুকআমরা সংহতি প্রকাশ করেছিএ কারণে, এটা শুধু বিএনপি দাবি করছে নাএটি জনগণের দাবিএজন্যই এখানে কথা বলেছিআমি স্বেচ্ছাপ্রণোদিত হয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছি

রমেশ দত্তের দাবির প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, ‘রমেশ দত্তকে সেখানে কে পাঠিয়েছে, তা আমি জানি নাএ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রমেশ দত্ত বলেন, ‘রিজভী ভাইয়ের সঙ্গে আমার কথা হয়েছেকিন্তু আমি এসেছি নিজে থেকেই

প্রসঙ্গত, আগামী জাতীয় নির্বাচনে রমেশ দত্ত রাজশাহী-৬ আসন থেকে বিএনপির মনোয়নপ্রত্যাশীছাত্রজীবনে তিনি ছাত্রদলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেনএকসময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেনএই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘রিজভী ভাই যখন গুলিবিদ্ধ হন, তখন তার পাশেই ছিলাম

তবে রুহুল কবির রিজভীর সঙ্গে রমেশ দত্ত কথা বলার দাবি করলেও আদতে বিজেপিকে সমর্থন দেওয়ার বিষয়ে বিএনপিতে কোনও আলোচনাই হয়নি বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়তিনি বলেন, ‘বিজেপি নামে একটি দল হয়েছে জানি, কিন্তু তাদের সঙ্গে কোনও ইন্টারেকশন হয়নিরমেশের কথা রমেশ বলেছেনএ বিষয়ে, আমি কিছুই জানি না

বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী বলেন, ‘রমেশের সঙ্গে এ বিষয়ে কোনও কথা হয়নিসমর্থন দেওয়ার বিষয়ে কোনও আলোচনা হয়েছে কিনা, জানি না

জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘রমেশ দত্তের সঙ্গে পরিচয় নেইআর বিজেপি নামে যে একটি দল হয়েছে, তাও জানি নাসমর্থন দেওয়ার বিষয়টি তো অনেক দূরের বিষয়

এদিকে বিজেপির সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের উপদেষ্টা কাজী আজিজুল হক, সাবেক ছাত্রদল নেতা শরিফুল ইসলাম শাওনসহ বিভিন্ন ধর্মের কয়েকজন প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন

উল্লেখ্য, গত ২০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান আদিবাসী পার্টি ও সমমনা অর্ধশতাধিক সংগঠনের উদ্যোগে বিজেপি গঠনের ঘোষণা দেওয়া হয়হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান আদিবাসী পার্টি ছাড়াও এই দলে আছে মুক্তির আহ্বান, বাংলাদেশ সচেতন সংঘ, জাগো হিন্দু পরিষদ, আনন্দ আশ্রম, হিন্দু লীগ, সনাতন আর্য সংঘ, বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশন, বাংলাদেশ ঋষি সম্প্রদায়, বাংলাদেশ মাইনরিটি ফ্রন্ট, হিউম্যান রাইটস, হিন্দু ঐক্য জোটসহ বিভিন্ন সংগঠনদলের সভাপতি ও মুখপাত্র হয়েছেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান আদিবাসী পার্টির সভাপতি মিঠুন চৌধুরী, মহাসচিব হয়েছেন দেবাশীষ সাহাদলের মহানগর সম্পাদক দেবদুলাল সাহা, দলের যুব পার্টির সভাপতি আশিক ঘোষ
সূত্রঃ https://goo.gl/smc9jb


বিএনপিতেও মোসাদের এজেণ্ট ঢুকে গেছেআওয়ামী লীগ ও বিএনপির হিন্দু নেতাদের দিকে দৃষ্টি দিন দেখবেন এ দল দুটির বিষয়ে অধিক উল্লসিততারা দল দুটিতে থেকে উমিচাঁদ রাজভল্লবদের ভূমিকায় অবতীর্ণসুতরাং ইসলামপন্থীরা সাবধান! ইসলামপন্থীদের বিপথগামী করতে বিজেপির পাশে কিন্তু খেলাফত আন্দোলনের সেই হিন্দুত্ববাদী নেতা মোসাদ এজেন্ট কাজী আজিজুল হক


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: