11.14.2017

অবশেষে সৌদিকে ৫ টুকরোর পরিকল্পনা বাস্তব হচ্ছে

যে উদ্দেশ্যে আইএস গঠন করা হয়েছিল তার ব্যাপক সাফল্য আসতে শুরু করেছে। এর পেছনে মূল উদ্দেশ্য ছিল মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলো ভেঙ্গে দেয়া। মুসলিম দেশগুলো ছিন্নভিন্ন করে দেয়া। উল্লেখ্য ইরাক ৩ টুকরো, সৌদি আরব ৫ টুকরো, পাকিস্থান ৩ টুকরো করার পরিকল্পনা ফাঁস হয়েছিল ২০০৬ সালেই। মার্কিন কর্নেল রাল্ফ পিটার ২০০৬ সালের “U-S Armed Forces Journal এর জুন সংখ্যায় যে মানচিত্র প্রকাশ করে তার শিরোনাম ছিল বিস্তৃত মধ্যপ্রাচ্য প্লান

ইতিমধ্যে ইরাককে ভেঙ্গে স্বাধীন কুর্দিস্থান করা হয়েছে।
https://goo.gl/QUwjRW
https://goo.gl/D91gk6

প্লান অনুযায়ী পাকিস্থান ৩ টুকরো করার কথা। সেজন্য সিরিয়া ধ্বংস করে এখন মার্কিন দস্যুরা আবারো আফগানিস্থানে ঢুকেছে। আইএসদেরও সেখানে নিয়ে এসেছে। আইএস ও তালেবানদের হেলিকপ্টারসহ অত্যাধুনিক যুদ্ধাস্ত্র সরবরাহ করেছে। যা সাবেক আফগান প্রেসিডেণ্ট হামিদ কারজাই মার্কিন সন্ত্রাসীদের দিকে আঙ্গুল তুলেই বলেছে। https://goo.gl/Zg7nUz

এদিকে প্লান অনুযায়ী সৌদি আরবকে ৫ টুকরো করার কথা। সে অনুযায়ী ক্রাউন কিং মোহাম্মদ বিন সালমান সৌদিকে ৫ টুকরা করার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে।

এ নিয়ে তুরস্কের সংবাদ সংস্থা ইয়েনি সাফাক-এ নিউজ বের হয়েছে। খবরে বলা হয়, মক্কা শরীফ ও মদিনা শরীফে ভ্যাটিকানের অবকাঠামোর প্রস্তাব, ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রের পরিকল্পনায় সৌদি আরবকে চার ভাগে বিভক্তের পরিকল্পনা!

তুরস্ককে বিভক্ত করার জন্যে ইরাকের উত্তরাঞ্চলে কুর্দিস্তানের স্বাধীনতার উদ্যোগ ব্যর্থ হওয়ার পর এবার সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান তার দেশকে ৪ অঞ্চলে বিভক্ত করার পরিকল্পনা নিয়ে আগাচ্ছেন। খবর প্রকাশ করেছে তুরস্কের অনলাইন নিউজ পোর্টাল ইয়েনি সাফাক। অনলাইনটি বলেছে, ইসরায়েল ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিকল্পনা অনুসারে সৌদি আরবকে বিভক্ত করার জন্যেই এধরনের প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। ইতিমধ্যে বাদশাহ সালমান তার দেশে মডারেট ইসলামপ্রতিষ্ঠার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছে।

পরিকল্পনা অনুসারে সৌদি আরবকে চারটি অঞ্চলে বিভক্ত করে মক্কা ও মদিনাকে ভ্যাটিকানের মত একটি অবকাঠামোয় আনা হবে। রিয়াদকে কেন্দ্র করে যে অঞ্চল গড়ে উঠবে তা পরিচালিত হবে মডারেট ইসলামপ্রকল্পের অধীনে। আল-কাতিফ ও আল-দাম্মামকে নিয়ে হবে শিয়া মুসলিম প্রদেশ। এবং দেশটির বাকি অঞ্চলে গড়ে তোলা হবে গ্রেট ইসরায়েলেরঅনুকরণে। এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে আগামী ১০ বছরে।
বিস্তারিত : https://is.gd/UAOBD9
দৈনিক আমাদের অর্থনীতি- ১৩/১১/২০১৭ শেষপৃষ্ঠা
আরো https://is.gd/u2qUmg

পরিশেষে একটি কথাই শুধু বলবো আর তা হলো হে নামধারী মুসলিম উম্মাহ ঘুমিয়ে থাকো যদিও ধ্বংস নিকটে।

মূলঃ যুলফিকার হায়দার।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: