11.22.2017

অবশেষে আদালতে ধর্ম অবমাননার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলো উগ্রপন্থী হিন্দু টিটু রয়


যারা এতদিন টিটু রায়ের আইডিকে ভুয়া বলে প্রচার করেছে তাদের পশ্চাৎদেশ লক্ষ্য করে কষে একটা লাথি মারুন। কারন রংপুরের সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধানোর মূল হোতা, যার কারনে ৬জন(৪জন অজ্ঞাত) নিরীহ মুসলমানের প্রান অকালে ঝরেছে, যার কারনে ৫০ জনের বেশী নিরীহ মুসলমান এবং পুলিশ আহত হয়েছেন, যার কারনে প্রায় ২০ টি গ্রামের মানুষ এখনো উগ্রপন্থী হিন্দুদের মামলায় বাড়িঘর ছাড়া সেই পবিত্র দ্বীন ইসলাম, ক্বাবা শরীফ, আর নবী করীম ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি ও অবমাননাকর ছবি পোস্ট কারি টিটু রয়, যাকে উপরে বর্ণিত অভিযোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় আদালতে হাজির করা হলে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়ে নিজের দোষ স্বীকার করে নেয়।

রংপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলামের আদালতে জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। দুই দফায় আট দিনের রিমান্ড শেষে মঙ্গলবার টিটু রায়কে আদালতে হাজির করা হয়।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ শেষে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে টিটু রয়কে কারাগারে পাঠানো হয় বলেও তিনি জানান।

নবী করীম ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি ও অবমাননাকর ছবি পোস্ট করার অভিযোগ এনে গত ৫ নভেম্বর রংপুর সদর উপজেলার খলেয়া ইউনিয়নের শলেয়াশাহ গ্রামের স্থানীয় আলমগীর নামে এক ব্যবসায়ী গঙ্গাচড়া থানায় আইসিটি আইনে এ মামলা দায়ের করেন।

এ নিয়ে গত ১০ নভেম্বর (শুক্রবার) ঠাকুরবাড়ি গ্রামে স্থানীয় মুসল্লি ও গ্রামবাসীর সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে ৬যুবক(৪জন অজ্ঞাত লোকাল সুত্রে) নিহত হন। এ ঘটনায় উগ্রপন্থী হিন্দুরা নিজেদের আটটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে মুসলমানদের ফাসানোর চেষ্টা করে (ভিডিও দেখতে পারেনঃ https://youtu.be/HxX4GMBfeOQ)। এরপর ১৪ নভেম্বর (মঙ্গলবার) ভোরে টিটুকে গ্রেফতারের পর গঙ্গাচড়া থানা থেকে মামলাটি ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: