11.03.2018

সাইয়্যিদাতুনা হযরত মারিয়া কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত জীবনী!!!


ত্বহিরাহ, ত্বইয়্যিবাহ, সাইয়্যিদাতুন নিসায়িল আলামীন, ছহিবাতু রসূলিল্লাহ, উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত মারিয়া কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত পবিত্র সাওয়ানেহ উমরী মুবারক।

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মিসরের শাসনকর্তা মুকাউকিস উনার নিকট সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার দাওয়াত নিয়ে একখানা পত্র মুবারক লিখেন। তিনি ছিলেন একজন খ্রিস্টান পন্ডিত, রোম সম্রাটের প্রশাসক রূপে নিয়োজিত। ইসকান্দিয়া ছিল তার রাজধানী। মুকাউকিস নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পত্র মুবারক যথাযথ সম্মানের সাথে গ্রহণ করে নিন্মোক্ত জাওয়াব দেনঃ

আমি আপনার পত্র মুবারক পাঠ করেছি এবং যা কিছু আপনি বলতে চেয়েছেন তা অনুধাবন করেছি। আমার জানা আছে যে, এখনও একজন সম্মানিত নবী (নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) উনার অাবির্ভাব অবশিষ্ট রয়েছে এবং তিনি আসবেন। কিন্তু আমার ধারণা ছিলো যে, তিনি শাম (সিরিয়া) অঞ্চলে তাশরীফ মুবারক আনবেন। আমি আপনার কাসেদ (দূত) উনার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করছি। মুবারক হাদিয়া স্বরূপ আপনার জন্য দুজন সম্মানিতা মেয়ে উনাদেরকে প্রেরণ করছি। উনারা দুইজন সহোদর এবং সম্ভ্রান্ত পারিবারের। এছাড়া দুল দুল নামক একটি বাহন ও কিছু কাপড় হাদিয়া মুবারক হিসেবে পাঠানো হচ্ছে। এই দুইজন সম্মানিতা মেয়ে উনাদের মধ্যে ছিলেন, ছাহিবাতু রসূলিল্লাহ, উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত মারিয়া কিবতিয়া আলাইহাস সালাম তিনি এবং উনার সম্মানিত বোন হযরত সীরিন রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা। উনারা ছিলেন ঈসায়ী ধর্মালম্বী। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম গ্রহন করার পর উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত হযরত মারিয়া কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনাকে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নিকাহ মুবারক করেন এবং উনার সম্মানিতা বোন হযরত সীরিন রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা উনাকে বিশিষ্ট নাত শরীফ পাঠক ছাহাবী হযরত হাসান বিন ছাবিত রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার সাথে নিকাহ মুবারক প্রদান করেন। সুবহানাল্লাহ!!!

কোন বর্ণনায় এসেছে, উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত মারিয়া কিবতিয়া আলাইহাস সালাম তিনি মুকাউকিস উনার চাচাতো বোন ছিলেন। হিজরী ৮ সনে উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র রেহেম শরীফে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার একজন মহাসম্মানিত আওলাদ আলাইহিস সালাম তিনি বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ!

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি উনার নাম মুবারক রেখেছিলেন হযরত ইবরাহীম আলাইহিস সালাম। তিনি খুব ছোট অবস্থায় বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। ঐতিহাসিক বালাজুরীর বর্ণনা অনুযায়ী তিনি ১৮ মাস দুনিয়াবী হায়াত মুবারক গ্রহণ করেন। উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম এবং উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনাদের পবিত্র রেহেম শরীফে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সকল আওলাদ আলাইহিমুস সালাম ওয়া আলাইহিন্নাস সালাম উনারা বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। যা অন্যান্য সকল সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মুমিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের লখতে জিগার মুবারকতথা কলিজা মুবারক উনার টুকরা মুবারকছিলেন। সুবহানাল্লাহ!!!

আফদ্বালুন নাস বাদাল আম্বিয়া হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম ও আমীরুল মুমিনীন হযরত ফারূক্বে আযম আলাইহিস সালাম উনাদের নিজ নিজ খিলাফতকালে উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনার অতিশয় সম্মান ও মর্যাদা মুবারক প্রকাশ করেন। উনারা উনার খিদমত মুবারক করার জন্য ভাতা নির্ধারণ করেন, যা উনার বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করার পূর্ব পর্যন্ত উনারা খিদমত মুবারক করেন। সুবহানাল্লাহ!

কিতাবে বর্ণিত আছে যে, উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম তিনি মিসরের আনসানা অঞ্চলের হাফন নামক গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক নির্দেশক্রমে আমীরুল মুমিনীন, কাতিবে ওহী হযরত মুয়াবিয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি হাফনবাসী উনাদের খারাজ (ভূমি কর) মাফ করে দিয়ে ছিলেন। ইহা উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনাকে সম্মানার্থে করা হয়েছিল। সুবহানাল্লাহ!!!

হিজরী ১৬ সনে পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ মাসে আমীরুল মুমিনীন হযরত ফারূক্বে আযম আলাইহি সালাম উনার খিলাফতকালে মহাপবিত্র মদীনা শরীফে উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত মারিয়া কিবতিয়া আলাইহাস সালাম তিনি বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। আমীরুল মুমিনীন হযরত ফারূক্বে আযম আলাইহিস সালাম তিনি উনার পবিত্র জানাযা উনার মহাসম্মানিত নামায মুবারক পড়ানোর সৌভাগ্য লাভ করেন। মহাপবিত্র জান্নাতুল বাক্বী শরীফ উনার মহাপবিত্র রওজা শরীফ অবস্থিত।

সূত্রঃ (উসুদুল গাবা, ইছাবা, সিয়ারুস ছাহাবা, অনান্য সীরত গ্রন্থ)

ছহিবাতু রসূলিল্লাহ হযরত উম্মাহাতুল মুমিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সুমহান পবিত্রতা মুবারক বর্ণনা করে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ﺇِﻧَّﻤَﺎ ﻳُﺮِﻳﺪ ﺍﻟﻠَّﻪ ﻟِﻴُﺬْﻫِﺐَ ﻋَﻨْﻜُﻢُ ﺍﻟﺮِّﺟْﺲَ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟْﺒَﻴْﺖ ﻭَﻳُﻄَﻬِّﺮَﻛُﻢْ ﺗَﻄْﻬِﻴﺮًﺍ . অর্থ: হে হযরত আহলু বাইত শরীফ (উম্মাহাতুল মুমিনীন) আলাইহিন্নাস সালাম! মহান আল্লাহ পাক তিনি চান আপনাদের থেকে সমস্ত অপবিত্রতা দূর করতে এবং আপনাদেরকে পরিপূর্ণরূপে পূতঃপবিত্র করতে অর্থাৎ মহান আল্লাহ পাক তিনি হযরত উম্মাহাতুল মুমিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদেরকে পবিত্র করার মত পবিত্র করেই সৃষ্টি মুবারক করেছেন। সুবহানাল্লাহ!

সূত্রঃ (সম্মানিত সূরা আহযাব শরীফ : সম্মানিত আয়াত শরীফ ৩৩)

উপরোক্ত আলোচনা দ্বারা যে বিষয়টি সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে তাহলোঃ- উম্মুল মুমিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম তিনি ছিলেন সম্ভ্রান্ত পরিবারের স্বাধীনা মহিলা। পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের মধ্যে হযরত উম্মাহাতুল মুমিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের যেসকল ফাযায়িল-ফযীলত মুবারক, মর্যাদা- মর্তবা মুবারক ও পবিত্রতা মুবারক বর্ণনা করা হয়েছে উম্মুল মুমিনীন আম্মাজান সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম তিনি সকল বৈশিষ্ট মুবারক উনার অধিকারিণী ছিলেন। সুবহানাল্লাহ!

অথচ একশ্রেণীর নিকৃষ্ট, নাপাক, পশুর চেয়েও অধম কাফির গোষ্ঠী নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং উম্মুল মুমিনীন আম্মাজান সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনার মুবারক শানে ব্লগ, ফেইসবুকে দীর্ঘদিন যাবত জঘণ্যতম মিথ্যা ও কুফরী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে যে, উম্মুল মুমিনীন আম্মাজান সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম তিনি নাকি উম্মুল মুমিনীন, ছহিবাতু আশিদ্দাউ আলাল কুফফার, আম্মাজান সাইয়্যিদাতুনা হাফসা আলাইহাস সালাম উনার বাঁদী ছিলেন। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ!! নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক!!!

আর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নাকি বিবাহ ব্যতীত উনাকে গ্রহণ করেছেন। নাউযুলিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ!! নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক!!! লানাতুল্লাহি আলা শাররিকুম।

মূলতঃ কাফিরদের উপরোক্ত প্রচারণা যে ইতিহাসের জগণ্যতম মিথ্যা তা উম্মুল মুমিনীন আম্মাজান সাইয়্যিদাতুনা হযরত কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনার মহাপবিত্র সাওয়ানেহ উমরী মুবারক দ্বারাই সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। সুবহানাল্লাহ!!!

এতএব, যারা উপরোক্ত আক্বীদায় বিশ্বাসী তারা কস্মিনকালেও মুমিন-মুসলমান হতে পারেনা। তারা যদি মুমিন-মুসলমান দাবি করে থাকে, তবে তারা কাট্টা মুরতাদের অন্তর্ভূক্ত। আর যদি কোন কাফির একথা প্রচার করে থাকে তবে তারা চরম পর্যারের কাট্টা কাফির হিসেবে সাব্যস্তত হবে। বস্তুতঃ কাট্টা কাফির ব্যতীত কেউ এ বিষয়টি চিন্তাও করতে পারবেনা।

সম্মানিত শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে তাদের একমাত্র শাস্তি মৃত্যিদন্ড। উল্লেখ্য, মুসলমান মাত্রই এ আক্বীদা রাখতে হবে যে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে মহাসম্মানিত নবুওওয়াত মুবারক ঘোষণার পূর্বে ও পরে সর্বদাই মহান আল্লাহ পাক উনার কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত। তিনি সৃষ্টির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সকলের জন্য সর্বোত্তম ও সর্বশ্রেষ্ঠ আদর্শ মুবারক ও চরিত্র মুবারক উনার অধিকারী। সে সময় কাফির গোষ্ঠীও উনার মহাপবিত্র নাম মুবারকে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়ালেও উনার পূতঃপবিত্রতম চরিত্র মুবারক নিয়ে মিথ্যা কথা বলার মত দুঃসাহস দেখাতে পারেনি। কাজেই, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এবং মহাপবিত্রতা দানকারিণী আম্মাজান হযরত উম্মাহাতুল মুমিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের পূতঃপবিত্রতম চরিত্র মুবারক নিয়ে সামান্যতম সন্দেহও যার মধ্যে থাকবে সে নিকৃষ্টতম কাফিরের অন্তর্ভূক্ত।


সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুনঃ

এডমিন

আমার লিখা এবং প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি।

0 facebook: